তাসকিন-শরিফুলের চোটের কারণে উইন্ডিজ সফরে মুস্তাফিজকে পেতে মরিয়া বিসিবি। ক্রিকেট বোর্ড এক প্রকার নিরুপায় হয়ে মোস্তাফিজকে জানিয়ে দিয়েছে তাকে টেস্ট খেলতে হবে। কিন্তু মোস্তাফিজ তার সিদ্ধান্তে অনড়। আইপিএলের ক্লান্তিতে এখনই টেস্ট খেলতে চান না কাটার মাস্টার। যদিও বোর্ড সভাপতি ও প্রধান নির্বাচক তাদের বক্তব্যে স্পষ্টভাবে বলে দিয়েছেন, দলের প্রয়োজনে মুস্তাফিজ খেলবেন। শেষপর্যন্ত মুস্তাফিজের টেস্ট ভাগ্য কী হচ্ছে তা জানা যাবে আগামীকাল।

ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস জানিয়েছেন, 'মোস্তাফিজ ফিজিক্যালি ফিট নয়, এটা ও বলতে পারে। তার লজিকটা হচ্ছে সে দুইমাস ধরে ওখানে আছে। অনেকদিন ধরেই বাইরে আছে। বলছে আমার লম্বা একটা সময় চলে যাচ্ছে। মানে তার সময় নিয়ে নিচ্ছে বেশি। ফিজিক্যালি বলতে পারে সে ফিট না। আমরা বলেছি, তুমি আসো দেখা যাবে কি করা যায়। মনে হচ্ছে যে ও খেলতেও পারে। কিন্তু এটা আমরা কালকে জানতে পারবো।'

আগামীকাল ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের জন্য তিন ফরম্যাটের দল ঘোষণা করা হবে। বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস জানিয়েছেন, বোর্ড মুস্তাফিজকে টেস্ট খেলার নির্দেশনা দিয়েছে। সেহেতু তিন ফরম্যাটের দলেই দেখা যেতে পারে তাকে।

জালাল ইউনুস গণমাধ্যমকে বলেন, 'এটা তো পরিষ্কার যে আমরা চাচ্ছি মুস্তাফিজ খেলুক টেস্টে, অন্তত ওয়েস্ট ইন্ডিজে। আমরা তাকে জানিয়েছি যে আমরা তোমাকে চাই। তো দেখা যাক কী বলে। এটা কালকের মধ্যে পরিষ্কার হয়ে যাবে। কালকের মধ্যে ওয়েস্ট ইন্ডিজের টিম দিয়ে দেবে নির্বাচকরা, সেটা দেখলেই বুঝতে পারবেন।'

২০১৫ সালে টেস্টে অভিষেক হলেও মুস্তাফিজ খেলেছেন মাত্র ১৪টি টেস্ট। সবশেষ খেলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষেই, ২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে। এবার লাল বলের চুক্তিতেও নেই এই পেসার। বিসিবিকে জানিয়ে দিয়েছিলেন তিনি ক্রিকেটের এই অভিজাত সংস্করণে খেলতে চান না। কিন্তু তাসকিন-শরিফুলরা ইনজুরিতে পড়ায় মোস্তাফিজের বিষয়টি সামনে আসে জোরালোভাবে।