ফুটবলে কাউন্টার অ্যাটাকের মাস্টার রিয়াল মাদ্রিদ। ওই রিয়ালকেই পাল্টা আক্রমণে গোল দিয়েছে পিএসজি! সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে এক পা দেওয়া কিলিয়ান এমবাপ্পেকে আটকে দিয়েছে প্যারিসের ক্লাবটি। তার সঙ্গে নতুন চুক্তি করেছে। ওই চুক্তিকে ‘কেলেঙ্কারি’ অ্যাখ্যা দিয়ে লা লিগা কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে উয়েফার দারস্থ হওয়ার হুমকি দিয়েছে। 

বিবৃতিতে লা লিগা কর্তৃপক্ষ দাবি করেছে, এটা ইউরোপিয়ান ফুটবলের অর্থনৈতিকে অস্থিতিশীল করবে। শত শত লোকের চাকরি যাবে। অনেকের চাকরি হুমকির মুখে ফেলবে এবং ফুটবলের সততার জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়াবে। লা লিগার প্রশ্ন তুলেছে, গত মৌসুমে অন্তত ২০০ মিলিয়ন ইউরো লোকসানের মুখে পড়া পিএসজি এই চোখ ধাঁধাঁনো চুক্তি করলো কী করে? 

শনিবার লা লিগা বিবৃতিতে বলেছে, এই ধরনের চুক্তি ইউরোপের ফুটবল অর্থনীতির স্থিতিশীলতার জন্য, হাজার হাজার মানুষ এবং শত শত চাকরি জন্য, ইউরোপের পাশাপাশি ঘরোয়া ফুটবলের সততার জন্য হুমকি স্বরূপ। পিএসজির মতো ক্লাব যারা গত মৌসুমে ২২০ মিলিয়ন ইউরো লোকসানে ছিল, যার আগের মৌসুমেও বড় লোকসানে পড়েছে, তারা এমন একটা চুক্তি কীভাবে সম্পন্ন করে?  

লা লিগা কর্তৃপক্ষ ইউরোপিয়ান ফুটবলের অর্থনৈতিক ইকোসিস্টেম, স্থিতিশীলতা রক্ষার জন্য আগেও উয়েফা, ফ্রান্স প্রশাসন ও অর্থনৈতিক কর্তৃপক্ষ এবং ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ দিয়েছে এবং আবারও দেবে। 

উল্লেখ্য, এমবাপ্পের স্বপ্ন ছিল রিয়াল মাদ্রিদে খেলা। কিন্তু সেই স্বপ্ন তিনি বিসর্জন দিয়েছেন বেশ কিছু কারণে। তার মধ্যে অন্যতম হলো অর্থ এবং ক্ষমতা। শর্ত অনুযায়ী, ফুটবলার সাইনিং, কোচ নিয়োগে এমবাপ্পের মতামতকে গুরুত্ব দিতে হবে। সঙ্গে তিনি চুক্তি করায় পিএসজি তাকে ১০০ মিলিয়ন ইউরো সাইনিং বোনাস দিচ্ছে। প্রতি মৌসুমে ৫০ মিলিয়ন ইউরোর বেতন তো থাকছেই।