ঠিক ১১ বছর আগে সিরি আ' শিরোপা ঘরে তুলেছিল এসি মিলান। জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ তখন ফর্মের তুঙ্গে থাকা প্রভাবশালী এক স্ট্রাইকার। বুড়ো ইব্রা এখন সেই ফর্মে নেই। তবে ওজন আছে তার। মাঠ ও মাঠের বাইরে যা দেখা গেছে। ওই ইব্রা-অলিভিয়ের জিরুদের পারফরম্যান্সে ১১ বছর পর লিগ চ্যাম্পিয়ন হলো মিলান। 

লিগের শেষ ম্যাচে ইন্টার মিলান ও এসি মিলানের শিরোপা লড়াই জমে ওঠে। মিলান জিততে চ্যাম্পিয়ন তারা। তবে ড্র বা হারলে মৌসুমে জুড়ে শীর্ষে থাকার পরও শেষ দিন শিরোপা হাতছাড়া হবে। এমন ম্যাচে ইন্টার মিলান ৩-০ গোলে সাম্পাদরিয়াকে হারিয়েছে। ভুল করেনি এসি মিলানও। তারাও সাসুলোকে ৩-০ গোলে হারিয়ে লিগ ঘরে তুলেছে। 

এসি মিলান অবশ্য ম্যাচের প্রথমার্ধেই শিরোপা নিশ্চিত করে ফেলে। ইন্টারের জন্য কোন রোমাঞ্চ বা নাটকীয়তার অবকাশ রাখেনি। ম্যাচের প্রথমার্ধে ৩-০ গোলের লিড নেয় ইতালির প্রভাবশালী ক্লাবটি। ম্যাচের ১৭ মিনিটে জিরু প্রথম গোল করেন। ৩২ মিনিটে করেন দ্বিতীয় গোল। এরপর ৩৬ মিনিটে ক্যাসি লিড বাড়িয়ে নেন। ওই গোলেই শেষ পর্যন্ত জয় তুলে নেয়। 

অন্য দিকে ইন্টার মিলান প্রথমার্ধে গোল শূন্য সমতা করলেও দ্বিতীয়ার্ধে বড় জয় তুলে নেয়। ৪৯ মিনিটে গোল করেন ক্রোয়াট ফরোয়ার্ড ইভান পেরেসিচ। এরপর ৫৫ ও ৫৭ মিনিটে জোড়া গোল করেন আর্জেন্টাইন তরুণ জোয়াকিন কোরেইরা। ওই গোলেই লিগে দ্বিতীয় থেকে শেষ করেছে তারা। 

দুই মৌসুম আগে ক্যারিয়ার শেষের পথে থাকা ইব্রাহিমোভিচকে যুক্তরাষ্ট্রের ক্লাব থেকে দলে ভেড়ায় এসি মিলান। ৪০ বছর বয়সী সুইডিস স্ট্রাইকারকে নিয়ে সমালোচনা কম হয়নি। জবাবে তিনি বলেছিলেন, মিলানের হয়ে লিগ জিতে দেখাবো। সেটাই করে দেখালেন তিনি। চলতি মৌসুমেও লিগে ২২ ম্যাচে আট গোল করেছেন তিনি। কথা রেখেছেন ২৩ বছরের ক্লাবে ১১ ক্লাবে খেলা এই তারকা।