ভয় ধরিয়ে দিয়েছিলেন লঙ্কান টপ অর্ডার ব্যাটার কুশল মেন্ডিস। বুক চেপে মাঠ ছাড়ায় শঙ্কা জেগেছিল হৃদরোগ কিনা। মাঠ থেকে প্রাথমিক পর্যবেক্ষণ করে নেওয়া হয় রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে। সেখানে পরীক্ষার পরে জানা গেছে খারাপ কিছু হয়নি কুশলের। 

প্রায় তিন ঘণ্টা বিভিন্ন মেডিকেল পরীক্ষা হয়েছে তার। কিছু ধরা না পড়ায় ধারণা করা হচ্ছে যে, বুকের কাছের কোনো পেশিতে টান পড়ায় ব্যথা অনুভব করছিলেন। লঙ্কান দল সূত্রের খবর, হাসপাতালে ইসিজি করানো হয়েছে কুশলের। আরও কিছু রিপোর্ট হাতে পেতে সময় লাগায় বিকেল পর্যন্ত সেখানেই ছিলেন তিনি। 

ডাক্তারদের প্রাথমিক পর্যবেক্ষণে হৃদরোগ জাতীয় কোনো সমস্যা ধরা পড়েনি। সোমবার লাঞ্চ সেশনের আগে স্লিপে দাঁড়িয়ে ফিল্ডিং করছিলেন কুশল। কাসুন রাজিথার বল কিপিং করে তার কুশল মেন্ডিসের কাছে ছুড়ে দিয়েছিলেন ডিকওয়েলা। বল ধরার সময়ই মনে হচ্ছিল কোনো সমস্যা হচ্ছে তার। 

কিছুক্ষণ পরই মাটিতে বসে পড়েন তিনি। বুকে হাত দিয়ে বোঝাতে থাকেন, ব্যথা হচ্ছে তার। লঙ্কান দলের চিকিৎসক মাঠে এসে স্ট্রেচারে করে বাইরে নিয়ে যাওয়ার সংকেত দেখান। কিন্তু কুশল নিজেই হাঁটতে হাঁটতে মাঠ ছাড়েন। কুশলের জায়গায় এরপর ফিল্ডিং করেন কামিন্দু মেন্ডিস।