বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির সাবেক সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেছেন, ‘দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন নয়, নির্দলীয় তদারকি সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে। সরকার মধ্যরাতের ভোটের মাধ্যমে ক্ষমতা ধরে রেখেছে। তারা ইভিএমে কারসাজির মাধ্যমে দলীয় সরকারের অধীনে ভোটের আয়োজন করে আবারও ক্ষমতায় থাকতে চায়।’

শুক্রবার কমিউনিস্ট পার্টি বগুড়া জেলা শাখা আয়োজিত জনসভায় তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেছেন।

সেলিম আরও বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন গঠন সংবিধান অনুযায়ী হয়নি, হয়েছে সরকারের পছন্দ অনুযায়ী। তাই গণতান্ত্রিক পদ্ধতির নির্বাচন আশা করা যায় না। প্রতিবছর দেশ থেকে ৬৮ হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার হচ্ছে। গত ১৬ বছরে পাচার হয়েছে ১১ লাখ কোটি টাকা। এক বছরে যে পরিমাণ টাকা পাচার হয়, তা দিয়ে দুটি পদ্মা সেতু তৈরি করা যাবে। এই টাকা জনগণের ঘাম ঝরানো টাকা। জনগণের টাকা লুটপাট করে বিদেশে পাচার করার জন্য মুক্তিযুদ্ধ হয়নি।’

শহরের সাতমাথায় অনুষ্ঠিত জনসভায় তিনি আরও বলেন, কৃষকরা উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্যমূল্য পাচ্ছেন না, অথচ কৃষকদের চড়া দামে কৃষিপণ্য কিনতে হচ্ছে। জেলা সিপিবির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা জিন্নাতুল ইসলাম জিন্নার সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন সিপিবির কেন্দ্রীয় নেতা আব্দুল্লাহ কাফী রতন, রাকসুর সাবেক ভিপি রাগিবুল আহসান মুন্না ও কেন্দ্রীয় নেতা অ্যাডভোকেট মহসিন রেজা। সঞ্চালনা করেন জেলা সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ফরিদ।