মহারণের অপেক্ষায় বিশ্বের কোটি কোটি ফুটবল ভক্ত। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ ও ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব লিভারপুল। ম্যাচটিকে ঘিরে ইতোমধ্যেই চড়তে শুরু করেছে উত্তেজনার পারদ।

রিয়াল মাদ্রিদের ১৪তম নাকি লিভারপুলের সপ্তম। লস ব্লাঙ্কোস নাকি দুরন্ত গতির অলরেডস। ফুটবল সমর্থকদের কৌতুহলের অবসান ঘটিয়ে আজ বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত একটায় বসছে আসরের ফাইনাল।

এর আগে ২০১৮ সালে ফাইনালে মুখোমুখি হয়েছিলো রিয়াল ও লিভারপুল। সেবার ৩-১ গোলে রিয়াল মাদ্রিদের কাছে ফাইনাল হারে অলরেডস। ওই ম্যাচে রিয়ালের সাবেক ডিফেন্ডার সার্জিও র‍্যামোসের প্রতিরোধে মিশরীয় তারকা মোহাম্মদ সালাহকে চোখের জলে মাঠ ছাড়তে হয়েছিলো। যার প্রতিশোধ নিতে মুখিয়ে আছে লিভারপুল ফরোয়ার্ড মোহাম্মদ সালাহ।

হাইভোল্টেজ এই ম্যাচের আগে জেনে নিন কোন পথে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে পৌঁছেছে সেরার সেরা দুই দল —

লিভারপুল

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গ্রুপ 'বি'তে ছিল জার্গেন ক্লপের লিভারপুল। গ্রুপ পর্বে কোনও ম্যাচে না হেরেই পুরো ১৮ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ শীর্ষে থেকে শেষ ষোলোতে পৌঁছেছিল লিভারপুল। শেষ-১৬তে ইন্টার মিলানকে দুই লেগ মিলিয়ে ২-১ গোল ব্যবধানে হারিয়ে শেষ আটের টিকিট পায় ক্লপের দল। এরপর শেষ আটে পর্তুগিজ ক্লাব বেনফিকাকে ৬-৪ ব্যবধানে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালে ওঠে লিভারপুল। সেমিফাইনালের দ্বৈরথে ভিলারিয়ালকে দুই লেগ মিলিয়ে ৫-২ ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালের টিকিট পায় সালাহর দল।

রিয়াল মাদ্রিদ

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গ্রুপ 'ডি'তে ছিল রিয়াল মাদ্রিদ। গ্রুপ পর্বের ৬ ম্যাচের ৫টিতে জিতে ও একটিতে হেরে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে পরের রাউন্ডে যায় রিয়াল মাদ্রিদ। শেষ ষোলোতে পিএসজিকে ৩-২ গোলে হারায় রিয়াল। এরপর কোয়ার্টার ফাইনালে রিয়ালের প্রতিপক্ষ ছিল চেলসি। শেষ পর্যন্ত ৪-৩ ব্যবধানে জিতে সেমিফাইনালে পৌঁছেছিল কার্লো আনচেলত্তির দল। সেমির লড়াইয়ে ম্যানচেস্টার সিটিকে দুই লেগ মিলিয়ে ৬-৫ ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালে ওঠে রিয়াল মাদ্রিদ।