চরম অর্থনৈতিক সংকটে পড়া শ্রীলঙ্কা নিজেদের একমাত্র তেল শোধনাগারটির কার্যক্রম পুনরায় চালু করতে রাশিয়ার কাছ থেকে তেল সংগ্রহ করছে।

দেশটির জ্বালানি মন্ত্রী কাঞ্চন উইজেসেকেরা বলেছেন, তেলের মূল্য বাবদ ৭৫ মিলিয়ন ডলার জোগাড় করতে ব্যর্থ হওয়ায় কলোম্বো বন্দরের কাছে উপকূলে প্রায় এক মাসেরও বেশি সময় ধরে রুশ ক্রুডবাহী জাহাজটি অপেক্ষা করছিল।

উইজেসেকেরা এও বলেন, রাশিয়া থেকে সরাসরি তেল সরবরাহের জন্য আমি রুশ রাষ্ট্রদূতকে আনুষ্ঠানিকভাবে অনুরোধ করেছি।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, দ্বীপরাষ্ট্রটি তার স্বাধীনতার পর সবচেয়ে খারাপ অর্থনৈতিক মন্দার কবলে পড়েছে। জ্বালানি তেল ও অন্যান্য প্রয়োজনীয় পণ্যের ঘাটতির কারণে দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে ২২ মিলিয়ন মানুষের জীবন।

বৈদেশিক মুদ্রা সংকটের কারণে অপরিশোধিত তেল আমদানির জন্য সরকার অর্থ বরাদ্দ দিতে না পারায় গত মার্চে শ্রীলঙ্কার একমাত্র রাষ্ট্রপরিচালিত সিলন পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (সিপিসি) শোধনাগারটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল।

ইউক্রেনে আক্রমণের পর রাশিয়ার ব্যাংকের ওপর মার্কিন নেতৃত্বাধীন নিষেধাজ্ঞা ও কূটনৈতিক প্রতিবাদ সত্ত্বেও রাশিয়া থেকে সরাসরি অপরিশোধিত তেল, কয়লা, ডিজেল ও পেট্রোল সরবরাহের বিষয়ে মস্কোর সঙ্গে আলোচনা করেছে কলম্বো।

যেখানে খুব শিগগিরই ইউরোপীয় নিষেধাজ্ঞা আসতে পারে বলে জানাচ্ছেন উইজেসেকেরা।

তিনি আরও বলেন, শুধু অপরিশোধিত তেলে আমাদের ঘাটতি দূর হবে না, এ জন্য অন্যান্য পরিশোধিত (পেট্রোলিয়াম) পণ্যও প্রয়োজন।