চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনাল শেষ হয়েছে। শেষ হয়েছে ইউরোপের শীর্ষ লিগের মৌসুমে। পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে সংবাদ মাধ্যম গোল ইউরোপের সেরা দল বেছে নিয়েছে। ওই দলে অনুমিতভাবে জায়গা পেয়েছেন রিয়ালের থিবো কোর্তুয়া, করিম বেনজেমা এবং লিভারপুলের মোহামেদ সালাহ। 

গোলরক্ষক হিসেবে গোলের একাদশে জায়গা পেয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদের বেলজিয়াম তারকা থিবো কোর্তুয়া। এছাড়া দারুণ মৌসুমে পার করায় সম্মানসূচক লিভারপুলের অ্যালিসন বেকার এবং এসি মিলানের মাইক ম্যাইগনানের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। 

সেন্ট্রাল ডিফেন্ডার হিসেবে রাখা হয়েছে লিভারপুলের ভার্জিল ভ্যান ডাইক এবং রিয়াল মাদ্রিদের ডেভিড আলাবাকে। রাইট ব্যাক হিসেবে আছেন ট্রেন্ট অ্যালেক্সজান্ডার অরনাল্ড এবং লেফট ব্যাক হিসেবে আছেন এসি মিলানের থিও হার্নান্দেজ। বিশেষভাবে উল্লেখ করা হয়েছে ম্যানসিটির রুবেন দিয়াজ এবং চেলসির অ্যান্তোনিও রুডিগারের নাম। 

ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার হিসেবে গোলের একাদশে রিয়ালের কাসেমিরোকে হটিয়ে জায়গা পেয়েছেন রদ্রি। তবে অ্যাটাকিং মিডফিল্ডে অনুমিতভাবেই আছেন ম্যানসিটির কেডিন ডি ব্রুইনি। বিশেষ উল্লেখ করা হয়েছে রিয়ালের টনি ক্রুস, ম্যানসিটির বেনার্ড সিলভা ও এসি মিলানের সান্দ্রো টোনাইলের নাম। 

রাইট উইঙ্গে জায়গা পেয়েছেন মোহামেদ সালাহ। এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে তিনি আট গোল করেছেন। লেফট উইঙ্গে রাখা হয়েছে এসি মিলানের তরুণ পর্তুগিজ রাফায়েল লিওকে। সেন্ট্রাল ফরোয়ার্ড হিসেবে সেরা এগারোতে জায়গা পেয়েছেন চ্যাম্পিয়ন রিয়ালের করিম বেনজেমা ও শেষ আটে বিদায় নেওয়া বায়ার্ন মিউনিখের রবার্ট লেভানডভস্কির নাম। 

গোলের ইউরোপ সেরা দল: থিবো কোর্তুয়া, অ্যালেক্সজান্ডার অরনাল্ড, ভ্যান ডাইক, ডেভিড আলাবা, থিও হার্নান্দেজ, রদ্রি, কেভিন ডি ব্রুইনি, মো. সালাহ, রাফায়েল লিও, করিম বেনজেমা, রবার্ট লিভানডভস্কি।