চট্টগ্রাম নগরের ডবলমুরিং থানার আগ্রাবাদ ঢেবারপাড় এলাকায় ছুরিকাঘাতে রাহাত আমিন রাব্বি (২৪) নামে এক যুবককে খুন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রাব্বি নগরের পশ্চিম মাদারবাড়ি সাহেবপাড়া এলাকার বাসিন্দা। পরিবারের অভিযোগ, মাদক কারবারে বাধা দেওয়ায় তাকে খুন করা হয়েছে। এ ঘটনায় ১০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন তার বাবা মোহাম্মদ আলী। তবে শুক্রবার সন্ধ্যা পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রাত ১১টার দিকে ঢেবারপাড় এলাকায় রাব্বির ওপর হামলা হয়। তার বুক, পিঠসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাত করে আগ্রাবাদ ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের পেছনে ফেলে রাখেন হামলাকারীরা।

তারা চলে যাওয়ার পর স্থানীয়রা রাব্বিকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন্তু সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

রাব্বির স্বজন ও বন্ধুদের বরাত দিয়ে পুলিশ জানিয়েছে, ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের পেছনে আগ্রাবাদ ঢেবা এলাকায় মাদক বিক্রিতে বিভিন্ন সময়ে বাধা দিতেন রাব্বি। এ নিয়ে বিক্রেতাদের সঙ্গে তার বিরোধ তৈরি হয়। এর জের ধরে তাকে খুন করা হয়েছে।

ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাখাওয়াৎ হোসেন সমকালকে বলেন, ভিকটিম ও আসামিরা সদরঘাট থানা এলাকার। প্রাথমিকভাবে জানতে পেরেছি, নিহত যুবকের সঙ্গে আসামিদের কয়েকদিন আগে কোনো বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্ব হয়েছিল। এর জের ধরে তাকে একা পেয়ে ছুরিকাঘাত করে খুন করা হয়েছে। নিহত রাব্বি ও আসামিরা একই বয়সের। রাব্বির বাবা অভিযোগ করেছেন, মাদক কারবারে বাধা দেওয়ায় এ হত্যাকাণ্ড হয়েছে। আমরা সবগুলো বিষয় খতিয়ে দেখছি। আসামিদের গ্রেপ্তার করতে পারলে পুরো বিষয় জানা যাবে।

নগর পুলিশের উপ কমিশনার (পশ্চিম) আব্দুল ওয়ারীশ বলেন, রাব্বি হত্যাকাণ্ডে নানা তথ্য পাচ্ছি। প্রাথমিকভাবে জেনেছি, হামলাকারীদের সঙ্গে রাব্বির পূর্ব বিরোধ ছিল। এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়েই মূল বিরোধ। মাদক ব্যবসারও একটা বিষয় শুনেছি। হামলাকারী কয়েকজনের নাম পেয়েছি। অভিযুক্তদের ধরতে থানার কয়েকটি দল অভিযান চালাচ্ছে।