বোলারদের দাপটে স্বস্তির সেশন পার করল বাংলাদেশ। শরিফুল-মিরাজ-খালেদের বোলিং তোপে প্রথম সেশনেই ৪ উইকেট হারিয়েছে স্বাগতিকরা। ৬৭ রান নিয়ে দিন শুরু করা উইন্ডিজ প্রথম সেশনে যোগ করতে পেরেছে ৭০ রান। বাংলাদেশের প্রথম ইনিংসের সংগ্রহের চেয়ে এখনো ৯৭ রানে পিছিয়ে আছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

৪২ ওভার শেষে ৪ উইকেট হারিয়ে ১৩৭ রানে লাঞ্চ বিরতিতে উইন্ডিজ। ক্যারিবীয়ানদের হয়ে ক্রিজে আছেন জার্মেইন ব্ল্যাকউড ও কাইল মেয়ার্স। তারা করেছেন ২ ও ৪ রান।

দ্বিতীয় দিন শুরু থেকেই রান তুলতে থাকেন  ব্র্যাথওয়েট-ক্যাম্পবেল জুটি। দলীয় শতরান তুলতেই সফরকারীদের প্রথম ব্রেক থ্রুটা এনে দিয়েছেন শরিফুল। ক্যাম্পবেলকে (৪৫) ফিরিয়ে উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন তিনি।

দ্বিতীয় উইকেটে রেমন রেইফারের সঙ্গে ৩১ রানের জুটি গড়ে তুলেছিলেন ব্রাথওয়েট। তবে ফিফটির পরেই ব্র্যাথওয়েটকে(৫১) ফেরান মেহেদি হাসান মিরাজ। এরপর একই ওভারে রেইফার-বোনারকে বোল্ড করে ফেরান খালেদ আহমেদ। এতে ৩২ রানে উইন্ডিজের ৪ উইকেট নিয়ে প্রথম সেশন নিজেদের করে নিলো বাংলাদেশ।

এর আগে গতকাল নিজেদের প্রথম ইনিংসে ২৩৪ রানেই গুটিয়ে গেছে সাকিব আল হাসানের দল। জবাবে বিনা উইকেটে ৬৭ রান তুলে প্রথম দিনের খেলা শেষ করেছে স্বাগতিক ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ১৬৭ রানে পিছিয়ে দ্বিতীয় দিন ব্যাট করতে নামে ক্যারিবিয়ানরা। বাংলাদেশের লক্ষ্য উইন্ডিজের রান আটকে দ্রুত উইকেট নেওয়া।