বিশ্বকাপের বছর পিএসজি ছাড়তে চান না। বরং গত মৌসুমের চেয়ে ভালো খেলতে চান। ক্লাবের হয়ে জিততে চান চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। নেইমারের বক্তব্য ছিল এমনই। কিন্তু ক্লাব প্রেসিডেন্ট নাসের আল খেলাইফির মন্তব্যে হতাশ তিনি। 

মন ভেঙে গেছে ৩০ বছর বয়সী ব্রাজিলিয়ান তারকার। তিনি চলতি গ্রীষ্মকালীন দলবদলের মৌসুমেই প্যারিস ছাড়তে চান। স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যম আরএমসি স্পোর্টস এমনটাই দাবি করেছে। 

পিএসজি প্রেসিডেন্ট নাসের আল খেলাইফি তরুণ ফ্রান্স ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপ্পেকে ধরে রাখতে সম্ভাব্য সবকিছু করেছেন। শেষ পর্যন্ত তিনি সফলও হয়েছেন। এমবাপ্পের সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করতে সক্ষম হয়েছেন। এরপর থেকে এমবাপ্পেকে নিয়েই যত উচ্ছ্বাস তার। 

নেইমারের প্রশ্নে কাতারি মালিকানাধীন ক্লাবটির প্রেসিডেন্ট ইঙ্গিত করে মন্তব্য করছেন। নেইমার তাদের প্রজেক্টের অংশ কিনা তা পরিষ্কার করছেন না। বিশ্বের সবচেয়ে দামী ফুটবলার ‘নট ফর সেল’ এমন মন্তব্যও করছেন না। বরং অনেককে ক্লাব ছাড়তে হবে, পরিশ্রম করতে হবে এমন মন্তব্য করছেন। 

কিছুদিন আগে সংবাদ মাধ্যম মার্কার সঙ্গে বিশেষ এক সাক্ষাৎকার দিয়েছেন খেলাইফি। তাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, নেইমার কি ভবিষ্যত প্রজেক্টের অংশ? তিনি বলেছেন, এসব নিয়ে সংবাদ মাধ্যমের সামনে কথা বলতে পারবো না। এগুলো ক্লাবের অন্তঃকক্ষ আলাপের বিষয়। একই সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছেন, ক্লাবের পরিস্থিতি আগের মতো নেই। তারা নতুন এমবাপ্পেদের খুঁজে বের করতে চান।

নতুন সাক্ষাৎকারে নেইমারকে নিয়ে এক প্রশ্নে খেলাইফি বলেছেন, ‘নেইমার গ্রীষ্মে ক্লাব ছাড়বে কিনা? আমি যেটা বলতে পারি, তা হলো নতুন মৌসুমে সকলকেই আগের চেয়ে অনেক বেশি ভালো করতে হবে।’ 

ক্লাব প্রেসিডেন্টের এই খোঁচা দিয়ে বলা কথা পছন্দ হয়নি ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমারের। তিনি তাই ক্লাব ছাড়তে চান। কিন্তু তাকে কেনার মতো ক্লাব খুব বেশি নেই। মোটা অঙ্কের অর্থ দিয়ে তাকে কিনতে হবে। সঙ্গে দিতে হবে প্রায় ৪০ মিলিয়ন ইউরো বেতন। নিউক্যাসল ইউনাইটেডের হাতে ওই অর্থ আছে। কিন্তু নেইমার ম্যাগপাই শিবিরে যেতে চান না। এর বাইরে নাকি চেলসি ও ম্যানইউ তার ব্যাপারে খোঁজ খবর নিচ্ছে।