আলোচিত ধর্ষণ মামলা থেকে মুক্তি পেয়ে এবার ক্ষতিপূরণ দাবি করলেন পর্তুগীজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। তিনি মামলার বাদী ক্যাথরিন মায়োর্গার আইনজীবীর বিরুদ্ধে ৬ লাখ ২৬ হাজার মার্কিন ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৫ কোটি ৮৯ লাখ টাকা) ক্ষতিপূরণ চেয়েছেন। সিআর সেভেনের পক্ষে তার আইনজীবী যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে আর্জি জানিয়েছেন। যদিও ওই মেয়ের আইনজীবী এখনও কোনো উত্তর দেননি। তবে ৮ জুলাইয়ের মধ্যে তাকে সেই চিঠির উত্তর দিতে হবে।

ঘটনাটি মূলত ২০০৯ সালের, বাদী ক্যাথরিন মায়োর্গা অভিযোগ করেন, লাস ভেগাসে এক হোটেলে রোনালদো তাকে ধর্ষণ করেন। তবে এমন অভিযোগ অস্বীকার করেন রোনালদো। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ফরোয়ার্ড জানান, দুজনের সম্মতিতেই তারা শারীরিক সম্পর্কে জড়ান। কিন্তু এই ঘটনার পর ক্যাথরিন মামলার হুমকি দিলে মীমাংসার জন্য রোনালদো তাকে ৩ লাখ ৭৫ হাজার মার্কিন ডলার দেন।

২০১৮ সালে আবারও অভিযোগ তোলেন ক্যাথরিন। সে বছর আগস্টে এ বিষয়ে আইনী তদন্ত শুরু হয়। তবে রোনালদোর আইনজীবীরা জানান, মামলার কোনো ভিত্তি নেই এবং রোনালদোকে কারণ ছাড়াই হয়রানি করা হচ্ছে। শেষ পর্যন্ত এটিই সত্য প্রমাণিত হলো। পর্তুগিজ মহাতারকার বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মামলা করায় তার বিরুদ্ধে ৬২ লাখ ডলারের মানহানি মামলা করেছেন রোনালদো। 

চাইলেও পুনরায় মামলা করতে পারবেন না ক্যাথরিন নামের সেই নারী। পাশাপাশি রোনালদোর সঙ্গে করা খারাপ আচরণের কারণে শাস্তির মুখে পড়তে হবে ক্যাথরিনের আইনজীবী লেজল মার্ক স্টোভালকে। এবার তার বিরুদ্ধে ক্ষতিপূরণ চাওয়া হলো।