ডমিনিকার প্রথম টি-টোয়েন্টি পরিত্যক্ত হবার পর দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতেও হেরেছে বাংলাদেশ। প্রথমে ব্যাটিং করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৯৩ রানের বিশাল পুঁজি সংগ্রহ করে স্বাগতিকরা। জবাবে সাকিব বাদে কারো পারফরম্যান্সই আশানুরূপ ছিল না। শেষ পর্যন্ত ১৫৮ রান করতে সক্ষম হয় বাংলাদেশ। ম্যাচটা হেরে যায় ৩৫ রানে।

ম্যাচ শেষে বাংলাদেশের অধিনায়ক দায় দেখছেন বোলারদের। মাহমুদউল্লাহ বলেন, 'বোলিংয়ে আমরা কয়েকটা ওভারে একটু বেশি রান দিয়ে দিয়েছি। আমরা যেভাবে প্ল্যান করেছিলাম, যেখানে আমরা বল করতে চেয়েছিলাম তা করতে পারিনি। যদি আমরা বোলিংটা একটু ভালো করতে পারতাম, তাহলে একটা ভালো ফল আসত।’

বাংলাদেশি বোলারদের ভুগিয়েছেন উইন্ডিজের রোভমান পাওয়েল। ২৮ বলে ৬ ছক্কা ও দুই চারে ৬১ রানে অপরাজিত ছিলেন। মাহমুদউল্লাহর মতে, 'পাওয়েলই ম্যাচটি ছিনিয়ে নিয়ে গেছেন আমাদের থেকে। সে অসাধারণ ব্যাটিং করেছে। তার অসাধারণ ব্যাটিংয়েই আমরা দিশেহারা হয়ে পড়েছি।'

বাংলাদেশে পেস বোলাররা ছিলেন বেশ খরুচে। শরিফুল ইসলাম স্লগ ওভারে ভাল করলেও বাকি দুজন ছিলেন মলিন। সাকিবও শেষ দিকে এসে ২৩ রান দেন এক ওভারে। তবে রিয়াদের মতে, টি-টোয়েন্টি ম্যাচে এরকমটা হয়ে যায়, যখন রভম্যান পাওয়েলের মতো কেউ ক্রিজে থাকেন।

এদিকে এক ওভারে মেডেন উইকেট পেয়েও পরে আর বোলিং করার সুযোগ পাননি মোসাদ্দেক। কেন তাকে আর বোলিংয়ে আনেননি রিয়াদ, তারও ব্যাখ্যা দিলেন, 'ও মেডেন উইকেট পেয়েছে আমি জানি। তবে যখন ওকে বোলিংয়ে আনার পরিকল্পনা করেছিলাম তখন ব্যাটিংয়ে ছিল পাওয়েল। তাই আমি তাকে বোলিংয়ে এনে রিস্ক নিতে চাইনি।'