কোনো দ্বিধা ছাড়াই সময়ের দুই সেরা ফুটবলার আর্জেন্টাইন মহাতারকা লিওনেল মেসি ও পর্তুগীজ সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। গেল দুই দশক ধরে তাদের পায়ের জাদুতে আলোকিত হয়েছে বিশ্ব ফুটবল। বিশ্ব ফুটবলের নানা রেকর্ড লুটিয়ে পড়েছে এই দুই কিংবদন্তির পায়ে। দু'জনের মধ্যে কে সেরা, এই প্রশ্ন উঠলেই বাধে বিপত্তি।

গেল মৌসুমে প্রিমিয়ার লিগে রোনালদোর উজ্জ্বল পারফরম্যান্স থাকলেও দলগতভাবে ভালো করতে পারেনি রেড ডেভিলরা। পয়েন্ট টেবিলের ৬ থেকে লিগ শেষ করেছে তার দল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ফলে খেলা হচ্ছে না চ্যাম্পিয়ন্স লিগ আসরে। সে কারণেই কি না ক্লাব ছাড়তে চান রোনালদো।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের রাজা বলা হয় রোনালদোকে। আসরে সর্বোচ্চ ১৪১ গোল তার। যার ধারে কাছে নেই দ্বিতীয় কেউ। ম্যানইউতে থাকলে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেই রেকর্ড হারানোর ভয়ে থাকবে পর্তুগীজ তারকা। আর এই রেকর্ড ভাঙতে পারে লিওনেল মেসি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে রোনালদোর থেকে ১৬ গোলে পিছিয়ে আছে আর্জেন্টাইন তারকা। রোনালদোর ১৪১ গোলের বিপরীতে মেসির ১২৫ গোল।

সাবেক আইরিশ স্ট্রাইকার টনি ক্যাসকারিনোর মতে, রোনালদোর ম্যানইউ ছাড়ার কারণ মেসির এই 'অদৃশ্য খোঁচা'। ইউরোপিয়ান ফুটবলে রোনালদোর রেকর্ড ভাঙতে পারে তার চিরপ্রতিদ্বন্দী মেসি। কারণ পরের বছর পিএসজির হয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলতে প্রস্তুত আর্জেন্টাইন তারকা।

টকস্পোর্টে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি বলেছেন, রোনালদো এমন একজন খেলোয়াড়, যার অহম আছে। সে যতগুলো দলে খেলেছে সবগুলোতেই সফল হয়েছে। তিনি সর্বকালের সেরাদের মধ্যে একজন। এরকম ফুটবলাররা শুধু জিততেই চাইবে, যখন হারতে থাকবে সেটি তার মানসিক অশান্তির কারণ হবে।'

তিনি আরো বলেন, রোনালদো চান তার রেকর্ড যেন অক্ষুন্ন থাকুক। পরের বছর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে রোনালদো না খেলতে পারলে গোলের ব্যবধান কমিয়ে ফেলতে পারে রোনালদো। যেটি পর্তুগীজ তারকা কখনো চাইবে না। এটাই তাকে সেরা খেলোয়াড় বানিয়েছে' 

সংবাদ মাধ্যম দাবি করেছে, রোনালদকে নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে চেলসি, বায়ার্ন মিউনিখ ও নাপোলি। চেলসির সঙ্গে রোনালদোর এজন্টের কথাও হয়েছে। ব্লুজদের সঙ্গে আলাপের পরই সাবেক রিয়াল মাদ্রিদ ও জুভেন্টাস তারকা নিজ ক্লাবকে প্রস্তাব পেলে রাজি হওয়ার অনুরোধ করেছেন। এছাড়া বায়ার্ন মিউনিখ রবার্ট লেভানডভস্কির বদলি হিসেবে তাকে চায়।