সারাবেলা বৃষ্টির দরকার ছিল টেস্টে। তাতে একটা টেস্ট হারের হাত থেকে বাঁচতেও পারতো বাংলাদেশ। টেস্টে বৃষ্টির বাধা ঠেলে সহজেই ফল হয়েছে। পাঁচ দিনের ম্যাচে বাধা কাটিয়ে ওঠা যায়। টি-২০’র ক্ষেত্রে ওই সুযোগ কম। 

ডমিনিকায় প্রথম টি-২০ ম্যাচে যেমন তিনবার বৃষ্টি বিঘ্ন ঘটিয়েছে। দু’বার কার্টেল ওভারে বাংলাদেশের ১৩ ওভারের বেশি ব্যাটিং সম্ভব হয়নি। এরপর পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয় ম্যাচ। একই মাঠে দ্বিতীয় টি-২০ ম্যাচেও বৃষ্টির পূর্বাভাস ছিল। তবে নির্বিঘ্নে মাঠে গড়ায় ম্যাচটি। 

তবে গায়ানায় অনুষ্ঠিত শেষ টি-২০ ম্যাচ মাঠে গড়াবে কিনা তা নিয়ে শঙ্কা তৈরি হয়েছে। কারণ ওই বৃষ্টি। বাংলাদেশ দল গায়ানা যাওয়ার পরে একদিন টানা বৃষ্টি হয়েছে। বুধবার বৃষ্টির কারণে অনুশীলন হয়নি ঠিক মতো। 

সারাবেলা বৃষ্টির পূর্বাভাস থাকায় ভেসে যেতে পারে সিরিজ নির্ধারণী সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-২০ ম্যাচ। আবহাওয়া পূর্বাভাস অনুযায়ী, গায়ানায় সকাল ছয়টা থেকে শুরু করে সন্ধ্যা ছয়টা পর্যন্ত থেমে থেমে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। 

ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ অবশ্য পুরো ম্যাচ মাঠে গড়াবে মানসিকভাবে ওই প্রস্তুতি রাখার কথা বলেছেন। ইতিবাচক ভাবতে চান বলে উল্লেখ করেছেন তিনি, ‘বৃষ্টির ওপর তো নিয়ন্ত্রণ নেই। পজিটিভ ভাবছি যে, পুরো ম্যাচ খেলব। সেভাবেই প্রস্তুতি নেওযার চেষ্টা করবো।’