ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ছাড়তে চাইছেন, এটা আর নতুন কী! বৃহস্পতিবার পর্যন্ত তিনি তাঁর সিদ্ধান্তে অনড়। অন্তত আমেরিকান স্পোর্টস টিভি নেটওয়ার্ক 'সিবিএস' এবং একাধিক ইংলিশ মাধ্যমের খবর তেমনটাই। এমনকি আর্থিকভাবে ছাড় দিয়ে হলেও ম্যানইউ ছাড়তে চান রোনালদো। এর মধ্যে নতুন ইঙ্গিত দিলেন বায়ার্ন মিউনিখের সিইও অলিভার কান।

ক'দিন আগেও নাকি এই বায়ার্ন রোনালদোকে কিনতে আগ্রহ দেখায়নি। তার আগে চেলসি ও পিএসজির মতো তারাও 'না' শব্দ উচ্চারণ করে। কিন্তু এখন ঠিক তার উল্টোটা দেখা যাচ্ছে। অলিভার কান রোনালদোর দলবদল নিয়ে কথা বলতে গিয়ে বলেন, 'আমরা এবার দলবদলের বাজারে বেশ আলোচনায়। এটা খুবই রোমাঞ্চকর। আপনি ঠিকই এখন রোনালদোর কথা জানতে চাইবেন। হ্যাঁ, এখনও কিছুদিন উইন্ডো খোলা আছে। আমরা এখনও কয়েকজন খেলোয়াড়ের সঙ্গে কথা বলছি। যে কোনো কিছু হতে পারে।'

রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে জুভেন্তাসে যাওয়ার পর থেকেই স্বস্তিতে নেই রোনালদো। নিজের প্রিয় প্রতিযোগিতা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সেভাবে আলো ছড়াতে পারছেন না। যেখানে বাসা বাঁধেন সেখানেই হতাশা ভর করে। শেষ পর্যন্ত চেনা ক্লাব ম্যানইউতে আসেন সিআর সেভেন। কিন্তু রেড ডেভিলদের ভূত তাঁর কাঁধেও ভর করে। খুঁড়িয়ে চলা দলটির চেহারা বদলাতে পারেননি রোনালদো। তাই চাইছেন নতুন কোথাও আবার বাসা বাঁধতে।

যদিও ম্যানইউ চাইছে রোনালদোকে নিয়েই নতুন মৌসুমে পথ চলতে। কোচ এরিক টেনও রোনালদোকে রাখতে মরিয়া। কিন্তু পর্তুগিজ তারকা কিছুতেই থাকতে চাইছেন না। এর মধ্যে বিভিন্ন ক্লাব না বলায় ভালোই হয়েছিল ম্যানইউর। এখন আবার বায়ার্নের গ্রিন সিগন্যাল হয়তো চিন্তায় ফেলবে ইউনাইটেড কর্তাদের।

অলিভার কান কেবল ইতিবাচক ইঙ্গিতই দেননি রোনালদোর প্রশংসাও করেছেন এভাবে, 'আমি ব্যক্তিগতভাবে ক্রিশ্চিয়ানোকে পছন্দ করি। সবাই জানে সে কেমন মানের ফুটবলার। তবে সব ক্লাবের আলাদা একটা দর্শন রয়েছে। জানি না শেষ পর্যন্ত কী হয়। জানি না, বায়ার্ন এবং বুন্দেসলিগার জন্য এটা সঠিক সিদ্ধান্ত হবে কিনা যদি আমরা তার সঙ্গে এখন চুক্তি করি।'