করোনার কারণে গত দুই বছর বিপর্যস্ত হয়েছে বিশ্বের সকল ক্রীড়াযজ্ঞ। একের পর এক বাতিল করতে হয়েছে বড় বড় আসর। টুর্নামেন্ট চলাকালীন কোনো খেলোয়াড় করোনা আক্রান্ত হলে তাকে থাকতে হয়েছে আইসোলেশনে। তবে সারাবিশ্ব্বে করোনার প্রকোপ কমায় এই নিয়ম শিথিল করেছে কমনওয়েলথ গেমস কতৃপক্ষ। করোনা আক্রান্ত হলেও লক্ষণ দেখা না গেলে খেলোয়াড়রা ইভেন্টে খেলতে পারবেন।

গত রাতে পর্দা উঠেছে কমনওয়েলথ গেমসের। এর মধ্যে কাল অস্ট্রেলিয়া দলের জন্য দুঃসংবাদ বয়ে আনেন বর্শা নিক্ষেপে বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়ন কেলসে-লি বারবের। কোভিড-১৯ পজিটিভ হয়েছেন এই অ্যাথলেট। তবে কোনো লক্ষণ দেখা না যাওয়ায় তিনি খেলতে পারবেন নিজের ইভেন্টে। আইনটা শুধু তার জন্যই নয়, কমনওয়েলথের সব প্রতিযোগীর জন্যই সমানভাবে প্রযোজ্য। 

অস্ট্রেলিয়া দলের হাই-পারফরম্যান্স ব্যবস্থাপক অ্যান্ড্রু ফেইচনের ভাষ্যমতে, আয়োজকরা নির্দেশনা দিয়েছেন, কোনো খেলোয়াড় আক্রান্ত হলেও যদি শারীরিকভাবে ভালো বোধ করেন, তাহলে তিনি খেলায় অংশ নিতে পারবেন।

বিশ্বজুড়ে করোনার প্রকোপ কিছুটা কমতির দিকে। সে কারণেই মূলত ইংল্যান্ড তাদের করোনা নীতিমালায় কিছুটা শৈথিল্য এনেছে। তাতেই এই সুযোগ পাচ্ছেন খেলোয়াড়রা।