নতুন মৌসুম কবে শুরু হবে, সেই প্রতীক্ষায় থাকেন ইংল্যান্ডের মানুষ। একটি মৌসুমের ইতি টানার পর অনেকদিনই ইংল্যান্ডের ফুটবলে ভাটার টান থাকে। ঘরে বসে দলবদলের সংবাদ পড়ে সময় কাটানো ছাড়া খুব একটা উপভোগের উপলক্ষ থাকে না। তাই তো নতুন মৌসুমে ভিন্ন দৃশ্য দেখা যায়। অবসর কিংবা অবকাশের বড় একটা সময় তাঁরা ফুটবল দেখে কাটান। কখন বন্ধুবান্ধব কখনও আবার গোটা পরিবারই হাজির হন গ্যালারিতে। আর নতুন মৌসুম যতদিন চলে ততদিন লন্ডন, বার্মিংহাম, ম্যানচেস্টার- এই শহরগুলোতে থাকে ভিন্ন এক উন্মাদনা। 

জার্সি বিক্রি, প্ল্যাকার্ড, ফেস্টুনের দোকানগুলোতে রমরমা ব্যবসা আর হাঁকডাক থাকে নিয়মিত। এ যেন এক ফুটবলমেলা। আজ থেকে সেই মেলা শুরু। কেননা আজই ২০২২-২৩ মৌসুমের প্রথম ম্যাচ। বাংলাদেশ সময় রাত ১টায় ক্রিস্টাল প্যালেসের ঘরের মাঠ সেলহাস্ট পার্ক থেকে শুরু এই মেলা। যেখানে ক্রিস্টালের প্রতিপক্ষ আর্সেনাল।

এবারের মৌসুমটা ফেভারিট ক্লাবগুলোর জন্য আরও বড় চ্যালেঞ্জের। দল গোছাতে কেউ কারও থেকে পিছিয়ে ছিল না। সারাবিশ্বের তারকা খেলোয়াড়দের নিয়ে নতুন উদ্যমে শিরোপার দৌড় শুরু করতে চায় তারা। যার মধ্যে লিভারপুলের জন্য একদিকে যেমন দারুণ সুযোগ উঁকি দিচ্ছে, আরেকদিকে কঠিন সমীকরণও। টানা দু'বার প্রিমিয়ার লিগের মুকুট ছোঁয়া হয়নি তাদের। তাই এবার খুব করে চাইবে প্রিমিয়ার লিগের ট্রফিটা জিততে। সেজন্য ইয়ুর্গেন ক্লপের বিধ্বংসী এক অস্ত্র ডারউইন নুনেজ। তরুণ এই স্ট্রাইকার এরই মধ্যে ফ্রেন্ডলিতে আলো ছড়িয়ে নজর কেড়েছেন সবার। তাই মৌসুমজুড়ে তার ওপর থাকবে দর্শকদের দৃষ্টি। 

অন্যদিকে, কাঁড়ি কাঁড়ি অর্থ ঢেলেছে ম্যানসিটি। যাদের স্কোয়াডে চমক দেখানো রিক্রুট আরলিং হল্যান্ড। এবার সাবেক এই ডর্টমুন্ড তারকাই পেপ গার্দিওলার তুরুপের তাস। সেই সঙ্গে মাঝমাঠের গতিবিধি মুহূর্তের মধ্যে বদলে দেওয়া কেভিন ডি ব্রুইনাকে নিয়েও প্রতিপক্ষকে ভাবতে হবে বেশি বেশি। 

প্রিমিয়ার লিগের 'বিগ থ্রি' ক্লাবের আরেকটি চেলসি। কোচের চেয়ারে থমাস টুখেল আসার পর ব্লুজদের উন্নতির গ্রাফটা তরতর করে ওপরের দিকে যাচ্ছে। যদিও প্রিমিয়ার লিগে এখনও সেভাবে ঝলক দেখাতে পারেনি।