জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে ৫ উইকেটে হেরেছে বাংলাদেশ। স্বাগতিকরা ৩০৪ রানের লক্ষ্য সহজে পাড়ি দিয়েছে। জোড়া সেঞ্চুরিতে দশ বল থাকতে ম্যাচ নিজেদের করে নিয়েছেন ইনোসেন্ট কায়া ও সিকান্দার রাজা। 

ম্যাচ শেষে অধিনায়ক তামিম ১৫-২০ রান কম হওয়ার আক্ষেপের কথা বলেছেন। ওই রান কম হওয়ার একটা দায় ওপেনিং জুটির। লিটনের সঙ্গে তামিম ১১৯ রানের জুটি দিলেও নিজে খেলেন ৮৮ বলে ৬২ রানের ইনিংস। 

অধিনায়ক তার ইনিংসের ঢাল ধরে বলেছেন, শুরুর ১০-১৫ ওভার টেস্টের মতো ব্যাটিং করতে হতো, ‘পর্যাপ্ত রান করতে পেরেছি বলে মনে হয় না। আমাদের আরও কিছু রান করতে হতো, ১০-১৫ রান কম করেছি। কন্ডিশন দেখেই বুঝেছিলাম, প্রথম ১০-১৫ ওভার আমাদের টেস্টের মতো ব্যাটিং করতে হতো।’ 

তিন ফরম্যাটে বাংলাদেশ দলের স্বস্তির জায়গা ছিল পেস বোলিং আক্রমণ। অথচ জিম্বাবুয়ে সিরিজে পেসাররা বিবর্ণ। সঙ্গে ক্যাচ-ফিল্ডিংও মিস করেছে বাংলাদেশ। তামিম মনে করছেন হারের একটা কারণ ওই ক্যাচ মিস, ‘আমরা নিয়মিত ক্যাচ ফেলছি এবং এর খেসারত আমাদের দিতে হচ্ছে।’ 

দলের হয়ে দারুণ ব্যাটিং করছিলেন লিটন। তিনি সাবধানী শুরুর পর হাত খুলে খেলা শুরু করেন। ৮৯ বলে ৮১ রান করে ইনজুরি নিয়ে মাঠ ছাড়েন। হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে পড়েছেন শরিফুল ইসলামও। সমস্যা অনুভব করছিলেন তাসকিন। তামিম জানিয়েছেন, লিটনের সিরিজ শেষ। অন্যদের আপডেট পাননি এখনও।