ইনজুরি জর্জরিত বাংলাদেশ দল। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডের একাদশ সাজানোই যেন কঠিন। সামনে এশিয়া কাপ। ওই আসরের বিবেচনায় থাকা বেশ ক’জন ক্রিকেটার ইনজুরিতে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সেজন্য এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের (এসিসি) থেকে এশিয়া কাপের দল ঘোষণার সময় বাড়িয়ে নিয়েছে। 

এশিয়া কাপ শুরু হবে ২৭ আগস্ট। বাংলাদেশের প্রথম ম্যাচ আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৩০ আগস্ট। ওই আসরের জন্য দল ঘোষণার শেষ সময় ৮ আগস্ট। এরই মধ্যে পাকিস্তান আসরের জন্য দল ঘোষণা করে দিয়েছে। তবে বাংলাদেশ দলের লিটন দাস, নুরুল হাসান, শরিফুল ইসলাম এবং মুস্তাফিজের ইনজুরি আপডেট পেতে ক’দিন সময় দরকার বিসিবির। 

এসিসির কাছে সময় চেয়ে আবেদন করায় বিসিবিকে তিনদিন সময় বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্সের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস সংবাদ মাধ্যম ক্রিকবাজকে বলেছেন, ‘লম্বা ইনজুরির তালিকা আমাদের ব্যাকফুটে ঠেলে দিয়েছে। সেজন্য এসিসির কাছে আমরা দল ঘোষণার জন্য ক’দিন সময় চেয়েছিলাম। আমাদের আবেদন গ্রহণ করা হয়েছে।’

বিসিবির এই সিনিয়র কর্মকর্তা জানিয়েছেন, দল চূড়ান্ত করার জন্য বেশ ক’জন ক্রিকেটারের মেডিকেল রিপোর্টের অপেক্ষায় আছেন তারা। এসিসি’র নির্দেশনা অনুযায়ী, ১১ আগস্টের আগে দল ঘোষণা করলেই হবে। 

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের দ্বিতীয় টি-২০ তে বাঁ-হাতের তর্জনির ইনজুরিতে পড়েছেন নুরুল হাসান। তাকে সিঙ্গাপুর পাঠানো হয়েছে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে। তিন থেকে চার সপ্তাহের মধ্যে তার মাঠে ফেরার সম্ভাবনা আছে। লিটন প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে পড়েছেন। বিসিবি তাকেও এশিয়া কাপে পাওয়ার আশা করছে। তার জন্য দরকার মেডিকেল রিপোর্ট। 

ওদিকে মুস্তাফিজ প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে পায়ের গোড়ালির ইনজুরিতে পড়েছেন। দ্বিতীয় ম্যাচে তারও খেলা নিয়ে অনিশ্চয়তা আছে। ইনজুরির অবস্থা বুঝতে দরকার মেডিকেল রিপোর্ট। ওয়ানডে ম্যাচে হ্যামস্ট্রিংয়ে ব্যথা অনুভব করছিলেন শরিফুল। তার বিষয়েও পরিষ্কার বার্তা দেয়নি বোর্ড। মুশফিকুর রহিম বৃদ্ধা আঙুলে ব্যথা পেয়েছেন। চোটের কারণে দলের বাইরে ছিলেন ইয়াসির রাব্বি ও সাইফউদ্দিন। তাদেরও ফিটনেস পরীক্ষার রিপোর্টের অপেক্ষায় আছে বিসিবি।