আর্জেন্টিনায় এটি কোন বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। প্রিয় দল হেরে গেলে তাদের দেশের সমর্থকরা তা মেনে নিতে পারেন না। খেলোয়াড়দের প্রাণে মেরে ফেলার হুমকির ঘটনাও ঘটেছে বেশ কয়েকবার। তেমনটাই ঘটেছে আর্জেন্টিনার প্রিমিয়ার ডিভিশনের ম্যাচে। গদয় ক্রুজের কাছে ২-০ গোলে হেরে যায় আতলেতিকো আলদোসিভি। এতেই আলদোসিভির সমর্থকরা নিজ দলের খেলোয়াড় ও কোচিং স্টাফদের গাড়ি আগুনে জ্বালিয়ে দিয়েছেন। এ ঘটনায় অবশ্য কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যম 'ক্লারিন' তাদের প্রতিবেদনে জানিয়েছে, আতলেটিকো আলদোসিভির খেলোয়াড় ও কোচিং স্টাফদের মোট পাঁচটি গাড়ি আগুনে পুড়িয়েছেন ক্লাব সমর্থকরা। চার ফুটবলার–হাভিয়ের ইরিতিয়ের, ব্রায়ান মার্তিনেজ, হোসে দেভেচ্চি ও ফ্রান্সিসকো চেরোর ব্যক্তিগত গাড়ি ছাড়াও কোচিং স্টাফ লুকাস রদ্রিগেজ পাগানোর গাড়িও সমর্থকরা আগুনে পুড়িয়েছেন।

দমকল কর্মীরা আগুণ নিয়ন্ত্রণ আনার প্রায় ঘণ্টাখানেক পর ক্লাব আতলেটিকো আলদোসিভির অফিসিয়াল টুইটার পেজে বিবৃতি দিয়েছে। ঘটনার সমালোচনা করে লিখেছে, 'ভেন্যুর পাশে আজ রাতে ঘটে যাওয়া ভাংচুরের ঘটনাটি সম্পূর্ণ প্রত্যাখ্যান করা হল।'

এ ঘটনায় তদন্ত চলছে উল্লেখ করে 'ক্লারিন' জানিয়েছে, ঘটনার সঙ্গে আর্জেন্টিনার উগ্র ফুটবল সমর্থকগোষ্ঠী 'বারা ব্রাভা'র যোগসূত্র পেয়েছে পুলিশ। যারা মূলত উগ্রবাদী একটি সংগঠন। ক্লাবের বাজে পারফরম্যান্স দেখলেই হট্টগোল বাজিয়ে বসে তারা। শেষ চার ম্যাচের মধ্যে আলদোসিভির তিন ম্যাচে হারায় সমর্থকরা এমন কাণ্ড ঘটিয়ে বসেন বলে জানা যায়।