পূর্বে লিওনেল মেসিকে দলের জেসুস ভাবা হতো। যেন সবই তিনি করে দেবেন। সব দায় তার। দায়িত্বও তার। আর্জেন্টিনার কিংবদন্তি স্ট্রাইকার গ্যাব্রিয়েল বাতিস্তুতার মতে, মেসি অসাধারণ খেলোয়াড় কিন্তু চার্চের জেসুস নয়। আর্জেন্টিনার এই দল সেটা বুঝতে শিখেছে।

সংবাদ মাধ্যম দ্য ন্যাশিওনালকে বাতিস্তুতা বলেছেন, ‘আমার চোখে, লম্বা একটা সময় আমরা সব দায়-দায়িত্ব মেসির ওপর চাপিয়ে রেখেছিলাম। সেজন্য প্রথমত, নিজেদের দায়ী করা উচিত। কারণ আমাদের বুঝতে হতো যে, মেসি চার্চের জেসুস নয়। সে অসাধারণ ফুটবলার। তারপরও আমরা সব দোষ তাকেই দিলাম।’ 

মেসির জাদুতে এর আগে আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলেছে। তিনটি কোপা আমেরিকার ফাইনালে হেরেছে। গত বছর ক্যারিয়ারের সাহাহ্নে এসে জোড়া ট্রফি জিতেছেন বার্সার সাবেক এই ফুটবলার। কোপা আমেরিকা ও ফিনালিজিমা জয়ী মেসিকে নিয়ে বাতিস্তুতা জানিয়েছেন, পিএসজি তারকা এই দলের সঙ্গে খেলাটা বেশি উপভোগ করেন। 

তিনি বলেন, ‘মেসি এই দলের সঙ্গে খেলতে অনেক স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে। এই দল বুঝতে শিখেছে যে, আমার কাছে বল থাকলে আমি মেসিকে দেব। যদি মেসি এবং অন্য এক সতীর্থ ফাঁকা থাকে তখনও মেসিকে দেব। কিন্তু মেসি ফাঁকা না থাকলে অন্য কাউকে দেব। এভাবেই দলটি ভালো ফুটবল খেলছে।’ 

একা গোল করার চেয়ে দলের সকলে মিলে ভালো খেলা যে গুরুত্বপূর্ণ এইটা মেসি বোঝেন বলেও উল্লেখ করেছেন সাবেক আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার, ‘মেসি তো বোকা নয়। সে বোঝে “একলা চলো রে... এবং দশে মিলে করি কাজ” এর পার্থক্য। মেসিকে গিয়ে জিজ্ঞেস করুণ, তার বার্সায় পেপ গার্দিওয়ালার অধীনে বড় বড় ফুটবলারের সঙ্গে খেলতে ভালো লেগেছে নাকি একা একা খেলে গাদা গাদা গোল করতে ভালো লেগেছে। আর্জেন্টিনার এই দলটাকে আমি ভালোবাসি। কারণ ওদের মধ্যে দল হয়ে খেলার ওই ব্যক্তিত্ব তৈরি হয়েছে।’

বাতিস্তুতার মতে, মেসির ৪০ বছর খেলার সম্ভাবনা আছে। কারণ ভালো খেলার ইগো আছে তার। দীর্ঘদিন খেলার সেই পা’ও আছে। মেসি ভালো খেললে তো তাকে দল থেকে বের করে দেওয়া যাবে না। কাতার বিশ্বকাপে মেসি ও আর্জেন্টিনা ভালো খেলবে বলেও বিশ্বাস করেন তিনি, ‘মেসি বিশ্বকাপে ভালো করবে, এটা তার শেষ বিশ্বকাপ বলে নয়। বরং ক্ষুধার জন্য। গতবারও সে বিশ্বকাপ জয়ের সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছে। তবে এবারের দলটা আরও ভালো।’