চলতি গ্রীষ্মে ইংল্যান্ডে প্রায় সব রোমাঞ্চ জন্ম দিয়েছে টেস্ট ক্রিকেট। এর পেছনে রয়েছে 'বাজবল' নামক নতুন এক কৌশল। বেন স্টোকস ও ব্রেন্ডন ম্যাককুলাম জুটির নেতৃত্বে ইংলিশরা এ কৌশলে তিনশর ওপরে রান অবলীলায় তাড়া করছে। বলা যায়, বাজবলে টেস্ট ফরম্যাটে পুনর্জন্ম হয়েছে ইংল্যান্ডের। আজ থেকে লর্ডসে শুরু হতে যাওয়া দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তিন টেস্টের সিরিজেও এ কৌশল অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়ে দিয়েছেন ইংলিশ অধিনায়ক বেন স্টোকস।

দক্ষিণ আফ্রিকানরা অবশ্য বাজবল নিয়ে মোটেও মাথা ঘামাতে চাইছে না। এরই মধ্যে প্রোটিয়া অধিনায়ক ডিন এলগার বলেছেন, বাজবল নিয়ে তার বিন্দুমাত্র আগ্রহ নেই। যদিও এ কৌশলে নিউজিল্যান্ড ও ভারতের বিপক্ষে গত চার টেস্টের সবক'টিতেই জয় পেয়েছে ইংল্যান্ড। তবে দীর্ঘ মেয়াদে এই কৌশল কার্যকর হয় কিনা সেটা দেখতে আগ্রহী এলগার। এখানেই মজা পাচ্ছেন স্টোকস। 

ইংলিশ অধিনায়ক জানিয়েছেন, প্রোটিয়ারা মুখে বলছে তারা এ কৌশল নিয়ে আগ্রহী নয়। অথচ এখন তাদের আলাপের একমাত্র বিষয়বস্তুই বাজবল। প্রথম টেস্টের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে স্টোকস বলেন, 'বাজবল কথাটি এখন প্রোটিয়া শিবির থেকেই প্রথম এসেছে। যার মানে, প্রতিপক্ষ এ বিষয়টি নিয়ে ভালোই কথাবার্তা বলছে। আমরা কিন্তু এসব নিয়ে এখন আর কথা বলছি না। গত কিছু দিন ধরে যা করেছি, সেটাই ধরে রাখার দিকেই আমাদের মনোযোগ। তাই ডিন (এলগার) ও তার সতীর্থরা এটা নিয়ে কথা বলায় আমার মজাই লাগছে।'

স্টোকসের মতে, তাঁরা হয়তো গত কিছু দিন ধরে একটা স্টাইল অনুসরণ করছেন। এ সিরিজেও সে কৌশলেই খেলবেন তাঁরা। তবে দিন শেষে লড়াইটা তো ব্যাট-বলের। সেখানে যাঁরা ভালো করবেন, তাঁরাই টেস্ট জিতবেন বলে মনে করছেন স্টোকস। ইংল্যান্ড টেস্ট দলের কোচ ব্রেন্ডন ম্যাককুলামের ডাকনাম অনুসারে এই কৌশলের নামকরণ হয়েছে 'বাজবল'। এর মূল কথা হলো 'বল দেখো এবং মারো!' ইংল্যান্ড দলে এ কৌশল বাস্তবায়নের মূল কারিগর হলেন জনি বেয়ারস্টো ও জো রুট। 

এ সিরিজে 'বাজবল' বাস্তবায়নের প্রধান বাধা প্রোটিয়া পেসাররা। ডানোন অলিভার চোটের কারণে ছিটকে গেলেও কাগিসো রাবাদা ফিট হয়ে ওঠায় প্রোটিয়া পেস আক্রমণ বেশ ধারালো হয়ে উঠেছে। আনরিখ নরখিয়া, কাগিসো রাবাদা, লুঙ্গি এনগিডি ও মার্কো ইয়ানসেনের পেস আক্রমণকে ইংলিশরা কতটা সামাল দিতে পারেন, সেটাই দেখার বিষয়। গত মাসে এজবাস্টনে ভারতের বিপক্ষে খেলা দলে একটি মাত্র পরিবর্তন এনে দল সাজাতে যাচ্ছে ইংল্যান্ড। স্যাম বিলিংসের বদলে আজ মাঠে নামবেন উইকেটকিপার বেন ফোকস।