এশিয়া কাপ মাঠে গড়ানোর তিন দিন হয়ে গেছে। গত তিন দিনে অনুষ্ঠিত এ দুই ম্যাচে বাংলাদেশ ছিল দর্শক সারিতে। দেরিতে টুর্নামেন্ট শুরু করতে পারায় লাভই হয়েছে সাকিবদের। প্রতিপক্ষের ম্যাচ দেখে ফেলায় গেম প্ল্যান করার একটা সুযোগ পেয়েছেন তারা।

সাকিবরা যেটা কাজে লাগাতে পারবেন আফগানিস্তানের বিপক্ষে শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। ভারত-পাকিস্তানের মতো বাংলাদেশ-আফগানিস্তান ম্যাচ ঘিরে উত্তেজনার পারদ খুব বেশি না উঠলেও সমর্থকদের মধ্যে আগ্রহের কমতি নেই। সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বে ভালো ক্রিকেট খেলে জয়ের প্রত্যাশাই করছেন সমর্থকেরা।

টি২০ দলের নেতৃত্বে সাকিবের তৃতীয় হলেও কোচ শ্রীরামের প্রথম মিশন। গত এক সপ্তাহে খেলোয়াড়দের হয়তো খুব ভালোভাবে বুঝেও উঠেতে পারেননি। এশিয়া কাপে তাই সাকিবের ওপরই পুরোপুরি নির্ভর করতে হচ্ছে কোচকে। সাকিবও কোচের প্রতি সম্মান রেখে সমন্বিত পরিকল্পনা নেওয়ার চেষ্টা করছেন প্রথম থেকেই। একাদশ বেছে নিতে ঘণ্টার পর ঘণ্টা মিটিং হয়েছে টিম ম্যানেজমেন্টের। রাসেল ডমিঙ্গোর মতো গতানুগতিক একাদশ খেলানোর পক্ষে নন সাকিব। প্রতিপক্ষ বিবেচনায় নিয়ে ব্যাটিং ও বোলিং লাইনআপ সাজাবেন তিনি। 

ওপেনিংয়ে এনামুল হক বিজয় নিশ্চিত। তার সঙ্গী হিসেবে দেখা যেতে পারে নাঈম শেখকে। ইতোমধ্যে টেকনিক্যাল পরামর্শক শ্রীধরন শ্রীরামের গুডবুকে জায়গা করে নিয়েছেন নাঈম। ভারতীয় এই কোচের মনে হচ্ছে, নাঈম আসলে সহজাত স্ট্রোক প্লেয়ার। তিনি প্রথম বল থেকেই মারতে পারবেন। তিন নম্বরে অবধারিতভাবে থাকছেন সাকিব আল হাসান। এরপর মুশফিক, রিয়াদ ও মিডলঅর্ডারে অলরাউন্ডার আফিফ দলের প্রতিনিধিত্ব করবেন। প্রয়োজনে হাল ধরবেন মেহেদী হাসান মিরাজ। পাওয়ার হিটিংয়ের কারণে দীর্ঘদিন পর ফিরতে পারেন সাব্বির।

বোলিংয়ে পেস আক্রমণে নিশ্চিত মুস্তাফিজ। চোট কাটিয়ে দীর্ঘ সময় পর জাতীয় দলে ফেরা অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনকে দেখা যেতে পারে তার সঙ্গী হিসেবে। স্পিনে মিরাজের সঙ্গে দেখা যেতে পারে নাসুম আহমেদকে।

বাংলাদেশের সম্ভাব্য একাদশ: নাঈম শেখ, এনামুল হক বিজয়, সাকিব আল হাসান, আফিফ হোসেন ধ্রুব, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান রুম্মান, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, নাসুম আহমেদও মুস্তাফিজুর রহমান।

আফগানিস্তানের সম্ভাব্য একাদশ: হজরাতুল্লাহ জাজাই, রহমানউল্লাহ গুরবাজ, ইব্রাহিম জাদরান, নাজিবুল্লাহ জাদরান, করিম জানাত, মোহাম্মদ নবী, রশিদ খান, আজমাতুল্লাহ ওমারজাই, নাবিন উল হক, মুজিব উর রহমান, ফজলহক ফারুকি।