১০২০ দিন পর সেঞ্চুরি করেছেন বিরাট কোহলি। বৃহস্পতিবার রাতে ফরিদ আহমেদের বলে ছয় মেরে তিন অঙ্কে পৌঁছার পর তাঁর মুখের চওড়া হাসিটাই বলে দিয়েছিল, কতটা শান্তি পেয়েছেন সেঞ্চুরিটি করে। ৬১ বলে অপরাজিত ১২২ রানের ইনিংসটি দিয়ে ছন্দে ফিরলেও অভিমান যাচ্ছে না কোহলির।

খারাপ সময়ে কেউই নাকি তাঁকে উপদেশ দিতে ছাড়েননি, কিন্তু তাঁর মনের ভেতরে কী চলছিল সেটা কেউ বোঝার চেষ্টা করেননি। স্ত্রী আনুশকা শর্মা ও কন্যা ভামিকাকে ৭১তম সেঞ্চুরিটি উৎসর্গ করেছেন। ভারতীয় বোর্ডের ওয়েবসাইটে দেওয়া এক ভিডিওতে রোহিত শর্মাকে সাক্ষাৎকারও দিয়েছেন কোহলি। সেখানে সতীর্থদের ধন্যবাদ দিয়েছেন তিনি।

আফগানদের বিপক্ষে জয়ের পর ম্যাচসেরার পুরস্কার হাতে নিয়ে কোহলি বলেন, 'আমাকে অনেকেই পরামর্শ দিচ্ছিল। সবাই বলছিল, এখানে ভুল করছি, ওখানে ভুল করছি। কিন্তু আমি কাউকে বোঝাতে পারছিলাম না আমার মনের মধ্যে কী চলছে। মানুষ আপনাকে উপদেশ দেবে। কিন্তু কেউ আপনার মনের কথা বোঝার চেষ্টা করবে না।'

অভিমানের সুরে কোহলি আরও বলেন, '৬০ রান করলেও সবাই বলছিল ব্যর্থ হয়েছি। খুব অবাক লাগত। কিন্তু কিছু করার ছিল না। নিজেকে বুঝিয়েছি, শূন্য থেকে শুরু করেছি।' তবে কঠিন এই সময়টার জন্য ঈশ্বরকে ধন্যবাদও দিয়েছেন কোহলি, 'মাঝের এই কয়টা মাসের জন্য ঈশ্বরকে ধন্যবাদ। কারণ, এই সময়টা শুধু ক্রিকেট নয়, জীবনের অন্য মানে আমাকে বুঝিয়েছে। এ সময়টা আমার জীবনে খুবই স্পেশাল।'

খারাপ সময় কাটানোর জন্য কয়েক মাস বিশ্রাম নিয়েছিলেন কোহলি। ফেরার পর দলের সবাই তাঁকে সমর্থন দিয়েছেন বলেও জানান তিনি, 'দলে ফেরার পর সবাই আমাকে সমর্থন দিয়েছেন। সাজঘরের পরিবেশ খুবই ভালো ছিল। কেউ আমাকে বাড়তি পরামর্শ দিতে যাননি।'

গতকাল সকালে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের ওয়েবসাইটে পোস্ট করা ভিডিওতে অবশ্য অন্য কোহলিকে দেখা গেল। দুবাইয়ের মাঠের এক প্রান্তে পাশাপাশি বসে হাসিমুখে কথা বলেছেন ভারতীয় ক্রিকেটের দুই স্তম্ভ রোহিত শর্মা ও বিরাট কোহলি। সেখানে রোহিতের মুখে 'আপনি' সম্বোধন ও এত হিন্দি শুনে হেসে ফেলেন কোহলি।

বলেন, 'এই প্রথম আমার সঙ্গে এত শুদ্ধ হিন্দিতে কথা বলছে।' কথা প্রসঙ্গে রোহিত এক মাস ব্যাট না ধরার বিষয়টি তুললে কোহলি বলেন, 'অনেক দিন ব্যাট ছুঁইনি। এশিয়া কাপে দলে ফেরার পর আবার মাথায় কেবল ঘুরছিল যে ব্যাট করতে হবে। তুমি (রোহিত) এবং পুরো দল যেভাবে কঠিন সময়ে আমার পাশে ছিলে, আমার মাথার ওপর থেকে চাপ সরিয়ে দিয়েছিলে। শুধু ব্যাট করার দিকে নজর দিতে বলেছিল। এজন্য ধন্যবাদ। এটা আমার জন্য খুব জরুরি ছিল।' তবে টি২০তে সেঞ্চুরি করার বিষয়টা নাকি তিনি ভাবতেই পারেননি।