ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে টানা দুই ম্যাচে 'গোল্ডেন ডাক' মেরে ফিরেছিলেন সাকিব আল হাসান। তবে সময় গড়াতেই স্বরুপে ফিরেছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার। আগের ম্যাচে ৩৫ রানের ইনিংসের পর এবার ২৭ বল খেলে পেয়ে গেলেন অর্ধশতকের দেখা। এর আগে বোলিংয়ে ২.৩ ওভারে মাত্র ১২ রান খরচায় নিয়েছেন একটি উইকেট। সাকিবের এমন অলরাউন্ড পারফরম্যান্সের দিনে গায়ানা পেয়েছে টানা চতুর্থ জয়। খেলা শেষে ম্যাচসেরারও পুরষ্কারও উঠেছে সাকিবের হাতে।

টস জিতে বার্বাডোজকে আগে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় সাকিবের দল। গায়ানার বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে বার্বাডোজকে ১২৫ রানে আটকে দেয় সাকিবরা। সাকিবের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের পাশাপাশি রোমারিও শেফার্ড ৩টি এবং কেমো পল ও ওডেন স্মিথ শিকার করেন ২টি করে উইকেট। বার্বাডোজের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪২ রান আসে জেসন হোল্ডারের ব্যাট থেকে।

১২৬ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ১৮ রানের মধ্যেই ২ উইকেট হারিয়ে বসে গায়ানা। চাপের মুখে চারে নেমে আগ্রাসী ক্রিকেট খেলতে থাকেন সাকিব। মাঠের চারপাশেই চার-ছয়ের ফুলঝুরিতে ২৭ বলেই তুলে নেন ফিফটি। যদিও ফিফটি তুলে ৩০ বলে ৫টি চার ও ৩টি ছয়ে ৫৩ রান করে বিদায় নেন টাইগার এই তারকা।

সাকিবের সামনে অপরপ্রান্তে প্রায় নিষ্প্রভ ছিলেন আফগান হার্ড হিটার রহমানউল্লাহ গুরবাজ। সাকিবের সঙ্গে ৮১ রানের জুটি গড়া গুরবাজ ফেরেন ব্যক্তিগত ২২ রানে। শেষদিকে গায়ানার অধিনায়ক শিমরন হেটমায়ার ১০ এবং কেমো পল ১২ রান করলে ৫ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে দলটি।