আইসিসির সহযোগী সদস্য হওয়ায় টেস্ট খেলুড়ে দেশগুলোর বিপক্ষে তেমন খেলার সুযোগ পায় না আরব আমিরাত। সেই আমিরাতের বিপক্ষেও জয় পেতে ঘাম ছুটে গেছে বাংলাদেশের। গত রাতে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশকে জিততে হয়েছে বেশ কষ্ট করে।

এভাবে ম্যাচ জিতে অধিনায়ক সোহানের কন্ঠে আক্ষেপের সুর। তার মতে, আর ১০-১৫ রান বেশি হলে এমন প্রতিদ্বন্দ্বিতা হত না। সোহান মনে করেন, ১০-১৫ রান কম হওয়ায় এই প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়েছে।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে আফিফ হোসেনের ক্যারিয়ারসেরা ৭৭ রান ও অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহানের ৩৫ রানের ইনিংসে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৫৮ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে সম্ভাবনা জাগিয়েও শেষ পর্যন্ত আর পেরে ওঠেনি স্বাগতিকরা। শেষ ওভারে অলআউট হওয়ার আগে ১৫১ রান করতে সমর্থ হয় তারা।

ম্যাচ শেষে সোহান বলেন, 'পাওয়ার প্লে-তে ওরা ভালো বোলিং করেছে, আমরা তিন উইকেট হারিয়েছি। শিশির থাকায় আমাদের বোলারদের গ্রিপে সমস্যা হচ্ছিল। বুঝতে পেরেছিলাম যে ১০-১৫ রান কম হয়ে গেছে। পাওয়ার প্লে-তে আমরা উইকেট হারিয়েছি। কিন্তু আমাদের বোলার শরিফুল ও মিরাজ ডেথ ওভারে খুব ভালো বোলিং করেছে। আফিফ সত্যিই ভালো খেলেছে। স্ট্রাইক রোটেট করেছে এবং এটা আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ছিল।'