এক ঘন্টারও বেশি সময় ভারী বর্ষণের বন্ধ ছিল বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার মধ্যকার ম্যাচ। বৃষ্টি থামায় ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে বাংলাদেশের টার্গেট নির্ধারণ হয়ে গেছে। জিততে হলে ৭ ওভারে ৪১ রান করতে হবে স্বাগতিকদের। 

শ্রীলঙ্কা বৃষ্টি নামার আগে ৫ উইকেটে ৮৩ রান করে। নিলাকশি ডি সিলভা ২৮ রানে অপরাজিত ছিলেন। বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ দুটি উইকেট নেন রুমানা আহমেদ।

এর আগে নারী এশিয়া কাপে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টস জিতে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ। সেমির দৌড়ে টিকে থাকতে হলে আজ জিততেই হবে বাংলাদেশকে।

সেমিফাইনালের সমীকরণ কেমন, এটা নিশ্চিত হবে থাইল্যান্ড-ভারত ম্যাচের পর। থাই মেয়েদের হারের সম্ভাবনা বেশি, তেমন হলে বাংলাদেশকে এক ম্যাচ জিতলেই চলবে। কিন্তু ভারতকে তারা হারিয়ে দিলে বাংলাদেশকে জিততে হবে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। এমন সমীকরণ সামনে নিয়েই শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে খেলতে নামে বাংলাদেশ দল।

চার ম্যাচের তিনটি জিতে শ্রীলঙ্কা পয়েন্ট তালিকার তিন নম্বরে। সমান ম্যাচে দুই জয় নিয়ে পাঁচে বাংলাদেশের মেয়েরা।

বাংলাদেশ একাদশঃ মুর্শিদা খাতুন, ফারজানা হক, নিগার সুলতানা, রিতু মনি, ফাহিমা খাতুন, রুমানা আহমেদ, সোহেলী আক্তার, সালমা খাতুন, জাহানারা আলম, সানজিদা আক্তার, সোবহানা মোস্তারি।