কাতার বিশ্বকাপের বাকি আর মাত্র ২৯ দিন। অংশ গ্রহণকারী ৩২ দল ব্যস্ত শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতিতে। এর মাঝেই ইরানকে বিশ্বকাপ থেকে নিষিদ্ধ করতে ফিফার কাছে আবেদন করেছে দেশটির ক্রীড়া ব্যক্তিত্বরা। শুধু জাতীয় দল নয় ইরান ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য পদ স্থগিত করাও আবেদন জানিয়ে ফিফার কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি দিয়েছে সংস্থাটি। মূলত ফুটবল ম্যাচ চলাকালে স্টেডিয়ামে নারীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে ইরানের।

স্পেনের আইনজীবী ফার্ম রুইজ-হুয়ের্তা অ্যান্ড ক্রেসপোর মাধ্যমে এই চিঠি পেয়েছে ফিফা। বিবিসি জানিয়েছে, ইরানের কিছু ফুটবলার এবং অন্যান্য অ্যাথলেটরা তাদের দেশের ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনকে নিষিদ্ধ করার অনুরোধ করেছেন ফিফার কাছে।

বিবৃতিতে বলা হয়,  'আইনি প্রতিষ্ঠান রুইজ-হুয়ের্তা অ্যান্ড ক্রেসপোর মাধ্যমে ইরানের ফুটবল এবং অন্যান্য খেলাধুলার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিত্বরা মিলে ফিফা এবং তার সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনোর কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে একটি চিঠি পাঠিয়েছেন। সেখানে ইরানের ফুটবল ফেডারেশনকে তাৎক্ষণিকভাবে নিষিদ্ধ করার দাবি করা হয় এবং তা ২০ নভেম্বর থেকে শুরু হতে যাওয়া বিশ্বকাপ থেকেই কার্যকরের অনুরোধ করা হয়েছে।'

এ বিষয়ে সংস্থাটির দাবি, 'যদি নারীদের স্টেডিয়ামে প্রবেশের অনুমতি না দেওয়া হয় এবং ইরানের ফুটবল ফেডারেশন কেবলমাত্র সরকারী নির্দেশ অনুসরণ এবং প্রয়োগ করে। তবে সেই সংস্থাকে স্বাধীন বলা যাবে না। এটি ফিফার আইনের লঙ্ঘন।'

আবেদনে সংস্থাটি অতীতের উদাহরণ টানে। তারা বলেন অতীতে যে দেশগুলো এই ধরনের কর্মকাণ্ডে জড়িতে ছিল তাদের সদস্যপদ স্থগিত করা হয়েছে। সুতরাং ইরানের ক্ষেত্রেও এই নিরপেক্ষতা বজায় রাখার আহ্বান জানায় সংস্থাটি।

কাতারে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া বিশ্বকাপে 'বি' গ্রুপে আছে ইরান। চার দলের গ্রুপে অন্য তিনটি দল যুক্তরাষ্ট্র, ইংল্যান্ড ও ওয়েলস।