ঘরের মাঠে বার্সেলোনাকে হারিয়েছিল ইন্টার মিলান। ক্যাম্প ন্যুতে কাতালানদের মৃত্যু লিখে এসেছিল। বুধবার রাতে ভিক্টোরিয়া প্লজেনকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে বার্সার ডেথ সার্টিফিকেট দিয়ে দিল ইন্টার। টানা দ্বিতীয়বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে বিদায় নিল জাভির দল। 

ঘরের মাঠে বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে কঠিন পরীক্ষা থাকলেও জাভি ও তার শিষ্যদের চোখ ছিল মিলানের সান সিরোয়। ইন্টার ও প্লজেন ম্যাচে। পুচকে প্লজেন কোন রকম ইন্টারকে আটকে বার্সাকে বাঁচাবে এই আশায়। কিন্তু চেক ক্লাবটি লড়াই করতেও পারেনি। রীতিমতো ধসে গেছে। 

ম্যাচের ৩৫ মিনিটে প্রথম লিড নেয় ইন্টার। গোল করেন মেখিতেরিয়েন। প্রথমার্ধে দলকে ২-০ গোলের লিড এনে দিয়ে শেষ ষোলোর সুবাস দেন এডেন জেকো। এরপর ৬৬ মিনিটে নিজের ডাবল ও দলের পক্ষে তৃতীয় গোল করেন তিনি। ইনজুরি থেকে ফিরে বদলি নেমে ম্যাচের ৮৭ মিনিটে গোল করে প্লজেনের পাশাপাশি বার্সার কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দেন রোমেলু লুকাকু। 

এই জয়ে পাঁচ ম্যাচে ইন্টারের পয়েন্ট দাঁড়ালো ১০। আগেই শেষ ষোলো নিশ্চিত হয়েছে বায়ার্নের। শেষ ম্যাচে যদি বাভারিয়ানদের কাছে ইন্টার হারে তবে পয়েন্ট ওই দশই থাকবে। আবার বায়ার্ন ও প্লজেনকে যদি জাভির দল হারাতে পারে তখন তাদেরও ১০ পয়েন্ট হবে। তবু গ্রুপ পর্বে বার্সার বিদায় লেখা হয়ে গেছে। কারণ ইন্টার ও বার্সার মুখোমুখি লড়াইয়ে এগিয়ে ইতালির জায়ান্টরা। 

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বে বার্সা বিদায় নেওয়ায় তাদের সামনে অপেক্ষা করছে বড় ‌অর্থনৈতিক দূযোর্গ। কারণ দল কর্তৃপক্ষ 'ঋণ করে ঘি খেয়েছে'। ক্লাবের বিভিন্ন সম্পত্তি বেচে ও বন্ধক রেখে লেভানডভস্কি, রাফিনহা, কুন্দেদের কিনেছে। ইউরোপ সেরার লড়াইয়ের গ্রুপ পর্বে বিদায় নেওয়ায় কাতালান ক্লাবটি ২০ মিলিয়ন ইউরো ১৯৪ কোটির মতো অর্থ হারাবে। যে ধাক্কা সামলে ওঠা দলটির জন্য কঠিন হবে।