ওপেনার কেএল রাহুল ব্যর্থ হয়েছেন। অধিনায়ক রোহিত শর্মা সেট হলেও বড় রান পাননি। সূর্যকুমার আগ্রাসী খেলতে গিয়ে ক্যাচ দিয়েছেন। তবে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ফাইনালে যাওয়ার লড়াইয়ে বিরাট কোহলি দায়িত্বশীল ইনিংস খেলেছেন। হার্ডিক পান্ডিয়া ঝড়ো ফিফটি করেছেন। তাদের ব্যাটে ৬ উইকেটে ১৬৮ রানের সংগ্রহ পেয়েছে ভারত। 

অ্যাডিলেডে টস জিতে ভারতকে ব্যাটিংয়ে পাঠান ইংলিশ অধিনায়ক জস বাটলার। ইনজুরির কারণে একাদশে আনেন দুই পরিবর্তন। ভারতীয় ওপেনার রাহুল ৫ রান করে ফিরে যান। দলের রান তখন ৯। এরপর রোহিত ও বিরাট ৪৭ রানের জুটি গড়েন। ভারতীয় অধিনায়ক আউট হন ২৮ বলে চারটি চারে ২৭ রান করে। 

দুর্দান্ত ছন্দে থাকা সূর্যকুমার ১০ বলে ১৪ রান করে আউট হন। একটি করে চার ও ছক্কা তোলেন তিনি। অন্য প্রান্তে দাঁড়িয়ে ছিলেন বিরাট কোহলি। তিনি হার্ডিক পান্ডিয়ার সঙ্গে  ৬১ রান যোগ করেন। ফিরে যাওয়ার আগে সাবেক ভারতীয় অধিনায়ক ৪০ বলে ৫০ রান করেন। 

শেষটায় দারুণ এক ঝড় দেখিয়েছেন হার্ডিক। ডানহাতি পেস অলরাউন্ডার খেলেছেন ৩৩ বলে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৩ রানের ইনিংস। শেষ বলে হিট উইকেট হওয়ার আগে তিনি পাঁচটি ছক্কা ও চারটি চারের মার দেখান। এছাড়া ঋষভ পান্ত করেন ৬ রান।

মার্ক উডের জায়গায় ইংল্যান্ডের একাদশে ঢোকা ক্রিস জর্ডান ৪ ওভারে ৪৩ রান দিয়ে নিয়েছেন ৩ উইকেট। স্যাম কারেন ৪ ওভারে ৪২ রান হজম করে উইকেট শূন্য থাকেন। লেগ স্পিনার আদিল রশিদ দারুণ ব্যাটিং করেছেন। তিনি ৪ ওভারে দিয়েছেন মাত্র ২০ রান। নিয়েছেন একটি উইকেট। এছাড়া ক্রিস ওকস ৩ ওভারে ২৪ রান দিয়ে একটি উইকেট দখল করেন।