সর্বিয়ার বিপক্ষে নেইমার জুনিয়র ইনজুরিতে পড়েছেন। একই ম্যাচে গোড়ালির ইনজুরিতে পড়েছেন রাইট ব্যাক দানিলো। তাদের দু’জনের জায়গা পূরণ নিয়েই মাথা ঘামাতে হচ্ছিল ব্রাজিল কোচ তিতের। পাকুয়েতাকে প্লে মেকিং পজিশনে দিয়ে ফ্রেডকে সেন্ট্রাল মিডে খেলানোর কথা বলছিল সংবাদ মাধ্যম। 

ডিফেন্ডার দানিলোর জায়গায় এদের মিলিতাও-এর খেলার জোরালো সম্ভাবনার কথা শোনা গিয়েছিল। কিন্তু রোববার অসুস্থতার জন্য অনুশীলন করতে পারেননি দীর্ঘদিন ব্রাজিল দলের সঙ্গে থাকা বাঁ-পায়ের মিডফিল্ডার পাকুয়েতা।

সংবাদ মাধ্যম রয়টার্স জানিয়েছে, রোববার আল আরাবিয়া স্টেডিয়ামে ব্রাজিল রুদ্ধদ্বার অনুশীলন করেছে। কিন্তু তারা জানতে পেরেছে যে, অসুস্থতার কারণে পাকুয়েতা পুরো অনুশীলন করতে পারেননি। অসুস্থ ব্রাজিলের আরেক তরুণ ফরোয়ার্ড অ্যান্তনিও।

পাকুয়েতা খেলতে না পারলে নেইমারের পজিশনে রদ্রিগো গোয়েসকে খেলানো হতে পারে। রিয়াল মাদ্রিদ ফরোয়ার্ড এরই মধ্যে ভিন্ন ভিন্ন পজিশনে নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করেছেন। মিডফিল্ডে কাসেমিরোর সঙ্গে সেক্ষেত্রে ফ্রেডকে খেলাতে পারেন কোচ। 

যদিও ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে শুরুর একাদশ নিয়ে কোন ধারণা দিতে রাজি হননি কোচ তিতে। তিনি জানান, একাদশটা গোপন রাখা তার কৌশলের অংশ, ‘একাদশের সিদ্ধান্ত আমার মাথায়ই আছে কিন্তু এখন তা খোলাসা করবো না। খেলোয়াড়দের বৈশিষ্ট্য, তাদের কৌশল ও আচরণ বুঝে সিদ্ধান্ত নিতে পারি।’ 

দানিলোর জায়গায় মিলিতাও কিংবা আলভেসের যেকেউ খেলতে পারেন বলেও উল্লেখ করেন তিতে, ‘মিলিতাও আগেও ওই পজিশনে খেলেছে। তার ওই পজিশনে (রাইট ব্যাক) খেলার সামর্থ্য আছে। টেকনিক্যাল ও নেতৃত্বগুনের বাইরে দানি আলভেস প্রমাণিত খেলোয়াড়।’