বিশ্বকাপ ফুটবলের ডামাডোলের ভেতরেও দেশে দেশে চলছে ক্রিকেট। ইংল্যান্ড পাকিস্তানে আর অস্ট্রেলিয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজে টেস্ট খেলছে। আজ থেকে বাংলাদেশও ঢুকে পড়ছে ক্রিকেটে। দিনে ক্রিকেট, রাতে ফুটবল- দেশে খেলার উৎসব। কাগজের পাতায় ক্রিকেটের কাভারেজ ছোট হয়ে গেলেও সমর্থকদের আবেগে টান পড়েনি। বিসিবির টিকিট রুম তো তাই বলে। টিকিটপ্রত্যাশীদের সেই পুরোনো ভিড়। লিটন কুমার দাস ও রোহিত শর্মার সংবাদ সম্মেলন জনাকীর্ণ। ভারত অধিনায়ক রোহিতের অনুমান- স্বাগতিক দর্শকে পূর্ণ গ্যালারির বিরুদ্ধ সমর্থন দ্বিতীয় প্রতিপক্ষ হয়ে উঠবে। মাঠে লিটনদের আর গ্যালারিতে জনতার গর্জন মোকাবিলা করেই ভালো ক্রিকেট খেলার আশা ভারত অধিনায়কের। আর বাংলাদেশ দলের বদলি অধিনায়ক লিটন কুমার দাসের চাওয়া তো একটাই- ভারতকে হারিয়ে নিজের নাম রওশন করা।

যে কোনো দলের চাওয়া থাকে জয়। সেখানে পছন্দের ক্রিকেট হলে তো কথাই নেই।

কে না জানে ওয়ানডে ক্রিকেট বাংলাদেশের বড্ড পছন্দ। লিটনরা এই একটি সংস্কারণে বিশ্বের যে কোনো দলের বিপক্ষে খেলতে নামেন ভালো করার স্বপ্ন নিয়ে। দেশে-বিদেশে ভালো ফলও করছেন। এ বছরই ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং দক্ষিণ আফ্রিকায় ওয়ানডে সিরিজ জিতে বিশ্বকাপ সুপার লিগের টেবিলে ভিতটা মজবুত করে নিয়েছেন। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ তিনটি বিশ্বকাপ সুপার লিগের খেলা না হলেও মর্যাদায় উঁচুতে। প্রতিবেশী থেকে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীতে বাঁক নিতে চলেছে এ দুই দলের ক্রিকেট ম্যাচ। খেলার সঙ্গী হয়ে গলাগলি করে চলে বিতর্ক। ২০১৬ তে ব্যাঙ্গালুরু, ২০১৫ সালে মেলবোর্ন আর গত মাসে অ্যাডিলেডে আইসিসি আম্পায়ারদের ভারতের পক্ষ নেওয়ার অভিযোগের আগুনে পুড়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম। সেই ভারতকে দেশের মাটিতে পেয়ে মোক্ষম জবাব দেওয়ার সুপ্ত বাসনা স্বাগতিক ক্রিকেটারদের মনের গভীরে থাকাটা স্বাভাবিক। সমীহের অন্তরালে প্রত্যাশার কথা জানাতে ভুল হয়নি লিটনের। 'ভারত সব সময় ভালো দল। এটাও মানতে হবে, ঘরের মাঠে আমরাও অনেক ভালো দল। এই ফরম্যাট এমন, ঘরে খেললে অনেক ভালো খেলি। অবশ্যই দু'জন মূল খেলোয়াড়কে (তামিম ইকবাল ও তাসকিন আহমেদ) মিস করব। তবে যারা আছে তারাও ভালো করার সামর্থ্য রাখে। দর্শক সব সময় আমাদের পক্ষে থাকে। তবে মিরপুরের উইকেট কেমন আচরণ করবে জানি না। ভালো দিক হলো তারা এই উইকেট সম্পর্কে খুব একটা জানে না। এটা আমাদের জন্য প্লাস পয়েন্ট।'

পরিসংখ্যান দেখলে আজকের ম্যাচে ভারতকেই এগিয়ে রাখতে হয়। এ দু'দলের ৩৫ ম্যাচের ৩০টিতেই জিতেছে সাবেক বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। বাংলাদেশ জিতেছে পাঁচটিতে। ২০১৫ সালের পর একদিনের ম্যাচে বাংলাদেশের কাছে হারেনি ভারত। শেষ হারটিও মিরপুরে, মুস্তাফিজুর রহমানের জাদুকরী পারফরম্যান্সে। গতকাল সংবাদ সম্মেলনে সাত বছর আগের স্মৃতিতে ফিরে গেলেন রোহিত। 'বাংলাদেশ খুবই ভালো একটি দল। দেশের মাটিতে খুবই ভালো ক্রিকেট খেলে তারা। আমাদের মধ্যে খুবই একসাইটিং ম্যাচ হয়। সমর্থকদের জন্য যেটা উপভোগ্য হয়ে ওঠে।' লিটনরা কি পারবেন রোহিতদের ২০১৫ এর স্মৃতি আরও একবার ফিরিয়ে দিতে? সে যাই হোক, দিবারাত্রির ম্যাচ হলেও মিরপুরে আজ খেলা শুরু হবে দুপুর ১২টায়।