বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার মিরপুর স্টেডিয়ামে অল্প রানে  ক্ষণে ক্ষণে রঙ বদলানো এক ম্যাচ হয়েছে। সেরা সব ব্যাটার নিয়েও সফরকারীরা ভালো রান পায়নি। ওই রান তাড়ায় শুরুতে এবং মিডল অর্ডারে বিপর্যয়ে পড়ে বাংলাদেশ। হারের প্রান্তে চলে যাওয়ার পরে মেহেদি মিরাজ দৃঢ় ব্যাটিং করে দলকে ১ উইকেটের জয় এনে দিয়েছেন। 

ওই জয় নিয়ে বাংলাদেশ জাতীয় দলের স্পিন অলরাউন্ডার মিরাজ বলেন, ‘আমি সত্যি আনন্দিত এবং উচ্ছ্বসিত। ক্রিজে গিয়ে একটা সাইড ফোকাস করে খেলার পরিকল্পনা করেছিলাম। আত্মবিশ্বাস ছিল যে, ওই প্রান্তে বিশটির মতো বল খেলতে পারলে দলকে জেতাতে পারবো। এটা আমার কাছে স্মরণীয় এক পারফরম্যান্স।’ 

বল হাতে দলের হয়ে ৯ উইকেট নিয়েছেন সাকিব আল হাসান ও এবাদত হোসেন। এর মধ্যে বাঁ-হাতি স্পিনার সাকিব তুলে নেন ৫ উইকেট। বাকি উইকেটটি নিয়েছেন মেহেদি মিরাজ। ওই উইকেট নিয়ে ভারতীয় ব্যাটিং লাইনআপে প্রথম দাঁত বসান তিনি। ম্যাচ সেরা হওয়া মিরাজ বোলিং নিয়ে বলেন, ‘বল হাতে উইকেট টু উইকেট বল করার চেষ্টা করেছি কেবল।’ 

ওয়ানডে নেতৃত্বের প্রথম ম্যাচেই জয়ের স্বাদ পেয়েছেন লিটন দাস। তাও ভারতের মতো দলের বিপক্ষে। ম্যাচ শেষে তিনি জানান যে, শেষ মুহূর্তে ড্রেসিংরুমে বসে খুব নার্ভাস লাগছিল তার। অসাধারণ ইনিংস খেলেছেন মিরাজ। তার শেষ ৬-৭ ওভারের ব্যাটিং তিনি উপভোগ করেছেন।