বিশ্বকাপের ফাইনালে আবারও ফ্রান্স। গত রাতে মরক্কোর বিপ্লব থামিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফাইনাল নিশ্চিত করল ফরাসিরা। ম্যাচটা তারা জিতল ২-০ গোলে। ফাইনালে প্রতিপক্ষ আর্জেন্টিনা। ১৮ ডিসেম্বর লুসাইল আইকনিক স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ২২তম বিশ্বকাপের ফাইনাল।

ফাইনালে উঠা ফ্রান্সের সামনে সুযোগ ইতালি ও ব্রাজিলের রেকর্ডে ভাগ বসানো। ফাইনালে আর্জেন্টিনাকে হারাতে পারলেই তৃতীয় দল হিসেবে টানা দুবার বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করবে দিদিয়ের দেশমের দল। 

আর্জেন্টিনার ৩৬ বছরের শিরোপা খরা কাটাতে বড় বাঁধা ফ্রান্সের এমবাপ্পে। তেমনি টানা দুবার বিশ্বকাপ জিততে ফরাসিদের বাঁধা লিওনেল মেসি। এমবাপ্পেকে ঠেকাতে আর্জেন্টিনা যেমন পরিকল্পনা করবে তেমনটি ফ্রান্স করবে মেসিকে ঘিরেও। ফ্রান্স দলে যেটার মূল দায়িত্বে থাকবে মরক্কোর জালে প্রথম গোল দেওয়া ডিফেন্ডার থিও হার্নান্দেজ। কারণ তার প্রান্ত দিয়েই যে আক্রমণে উঠবেন মেসি।

কাতার বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত ৫ গোলের সাথে ৩ গোলের অ্যাসিস্ট মেসির। তাই মেসি যে প্রতিপক্ষের জন্য আতঙ্ক, সেটি না জানার কথা ফ্রান্সের এই ডিফেন্ডারের। তবে হার্নান্দেজ আত্মবিশ্বাসের সুরে জানালেন, মেসিকে ভয় পায় না তারা।

মরক্কোর বিপক্ষে জয়ের পর হার্নান্দেজ বলেছেন, 'এখন ফাইনাল নিয়ে ভাবতে হবে। রোববারের জন্য ফিট হয়ে উঠতে হবে। আমরা মেসিকে ভয় পাই না। আর্জেন্টিনা অসাধারণ এক দল। তবে নিজেদের শতভাগ উজাড় করে দিতে আমরাও প্রস্তুত থাকব।'

বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত ফ্রান্স ও আর্জেন্টিনার দেখা হয়েছে মোট তিন বার। এর মধ্যে আর্জেন্টিনার দুই জয়ের বিপরীতে ফরাসিরা জিতেছে একবার। সেটাও গত রাশিয়া বিশ্বকাপের রাউন্ড অব সিক্সটিনের ম্যাচে। হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ওই ম্যাচে ৪-৩ গোলে হেরেছিল আর্জেন্টিনা। মেসিদের হারিয়ে ওই আসরের শিরোপা ঘরে তুলে নেয় ফরাসিরা। রাশিয়ায় সে হারের প্রতিশোধ তুলে নেয়ার দারুণ সুযোগ কাতারে পাচ্ছে আর্জেন্টিনা। শেষ পর্যন্ত কারা শেষ হাসি হাসে সেটা দেখার জন্য বিশ্ব ফুটবলকে অপেক্ষা করতে হবে ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত।