ঢাকা শনিবার, ১৮ মে ২০২৪

লাইভ

রাজা-বেনেটে জিম্বাবুয়ের বড় জয়

রাজা-বেনেটে জিম্বাবুয়ের বড় জয়

ছবি- সংগৃহীত

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রকাশ: ১২ মে ২০২৪ | ০৯:৪৩ | আপডেট: ১২ মে ২০২৪ | ১৩:২০

রান তাড়া করতে নেমে শুরু থেকে দারুণ ব্যাটিং করে জিম্বাবুয়ে। ওপেনিংয়ে দারুণ শুরু এনে দেন বেনেট। ৭০ রান করে সাজঘরে ফেরেন তিনি। বেনেট ফিরলে জিম্বাবুয়ের হাল ধরেন সিকান্দার রাজা। তিনি অপরাজিত থেকে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। তার ব্যাট থেকে আসে ৭২ রান। ৯ বল হাতে রেখে ৮ উইকেটের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে দলটি।

বেনেটকে থামালেন সাইফউদ্দিন

বেনেট- রাজার ব্যাটে দুর্দান্ত খেলেছে জিম্বাবুয়ে। দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে পঞ্চাশ রান যোগ করে ৩৬ বলে ফিফটি তুলেছেন বেনেট। তবে ফিফটির পর বেশিক্ষণ টিকেননি। সাইফউদ্দিনের বলে রিশাদের ক্যাচ হয়ে ফিরেছেন ৪৯ বলে ৭০ রান করে।

১৬ ওভার শেষে ২ উইকেট হারিয়ে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ১২৬ রান।

জিম্বাবুয়ে শিবিরে প্রথম ব্রেকথ্রু সাকিবের

দারুণ শুরু করেছিলেন জিম্বাবুয়ের ওপেনার ব্রায়ান বেনেট। অপর প্রান্তে ছিলেন মারুমানি। এবার সাকিবের বলে আক্রমণাত্নক হতে গিয়ে স্ট্যাম্প হারিয়েছেন তিনি। জিম্বাবুয়ে প্রথম উইকেট হারিয়েছে ৩৮ রানে।

ধস সামলে দেড়শ পার করল বাংলাদেশ

১৫ রানে তিন উইকেট হারানোর পর মাহমুদউল্লাহ-শান্তে বড় পুঁজির আশা দেখছিল বাংলাদেশ। তবে টেনেটুনে দেড়শ' পার করতে পেরেছে টাইগাররা। ক্যারিয়ারের অষ্টম আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ফিফটি করেন মাহমুদউল্লাহ। শেষদিকে জাকের আলীর ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে নির্ধারিত ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ১৫৭ রান। 

জাকেরের ব্যাট থেকে আসে ১১ বলে ২৪ রান। সাইফউদ্দিন ৪ বলে ৬ রানে অপরাজিত ছিলেন। মাহমুদউল্লাহ সর্বোচ্চ ৫৪ রান করেন। শান্তর ব্যাট থেকে আসে ৩৬ রান। সাকিব ২১ রান করেন। জিম্বাবুয়ের হয়ে ২টি করে উইকেট নেন মুজারাবানি-ব্রায়ান বেনেট।

২ ওভার বাকি থাকতে ফিরলেন মাহমুদউল্লাহ

সাকিবের বিদায়ের পর বেশিক্ষণ টিকতে পারলেন না মাহমুদউল্লাহ। মুজারাবানির বলে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান। ৬ চার ও ১ ছক্কায় ৪৪ বলে তিনি করেন ৫৪ রান।

মাহমুদউল্লাহর ফিফটি, ক্যাম্পবেলের ক্যাচে ফিরলেন সাকিব

৩৬ বলে ক্যারিয়ারের অষ্টম আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি ফিফটি পূর্ণ করলেন মাহমুদউল্লাহ। ১৫ রানে তিন উইকেট হারানোর পর দলের হাল ধরেছিলেন তিনি। মাহমুদউল্লাহর ফিফটির পর ক্যাম্পবেলের দারুণ ক্যাচে ফিরলেন সাকিব। ১৭ বলে ২১ রান করেন তিনি।

ছক্কা মারতে গিয়ে সাজঘরে শান্ত

মাসাকাদজার বলে ছক্কা মেরে পরের বলেই ছক্কা মারতে চেয়েছিলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। কিন্তু রায়ার্ন বার্লের ক্যাচ হয়ে ২৮ বলে ৩৬ রান করে থামলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। শান্তর বিদায়ে ভাঙল মাহমুদউল্লাহর সঙ্গে তার ৬৩ রানের জুটি।

তানজিদ-সৌম্যের পর সাজঘরে হৃদয়, চাপে বাংলাদেশ

পরপর দুই ওভারে দুই ওপেনারের উইকেট হারায় বাংলাদেশ। তানজিদ হাসানের পর ড্রেসিং রুমের পথ ধরলেন সৌম্য সরকার। ২ রান করে ফিরলেন তানজিদ, ৭ বলে ৭ রান করেন সৌম্য। দুই ওপেনারের পর এবার এবার তাওহিদ হৃদয়ও নেই। ৬ বলে ১ রান করতেই আউট। ৪.১ ওভারে ১৫ রান তুলতে বাংলাদেশের নেই ৩ উইকেট, এর মধ্যে দুটিই নিলেন ব্রায়ান বেনেট। শুরুতেই ব্যাটিং ধস বাংলাদেশের।

টসে হার, একাদশে তিন পরিবর্তন নিয়ে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ সিরিজে টানা চার ম্যাচে জিতে ইতোমধ্যে সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে বাংলাদেশ। এখন শেষ ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করার সুযোগ বাংলাদেশের সামনে। সেই মিশনে টস হেরেছে বাংলাদেশ। টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক সিকান্দার রাজা।

চলতি সিরিজের চার ম্যাচের তিনটি হয়েছে ফ্লাডলাইটে, সেগুলো শুরু হয়েছে সন্ধ্যা ৬টা থেকে। বিকেল ৩টা থেকে শুরু হওয়া ম্যাচটি হয়েছে দিনের আলোতে। আজকের ম্যাচটি শুরু হবে সকাল ১০টা থেকে। বাংলাদেশের মাটিতে কোনো আন্তর্জাতিক টি২০ ম্যাচ এই সকালে হয়নি। 

এর ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে বিসিবি ক্রিকেট অপারেশন্স পরিচালক জালাল ইউনুস জানিয়েছেন, আসন্ন টি২০ বিশ্বকাপের কথা মাথায় রেখেই এই সিরিজে ভিন্ন ভিন্ন সময়ে ম্যাচ আয়োজন করা হয়েছে। সেখানে সকাল, বিকেল ও সন্ধ্যায় বাংলাদেশের ম্যাচ রয়েছে বলেই এ সিরিজে সেভাবে সময়সূচি নির্ধারণ করা হয়েছে।

বাংলাদেশের একাদশে এসেছে তিন পরিবর্তন। দলে ফিরেছেন মাহমুদউল্লাহ, মেহেদী হাসান ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। তাদের জায়গা করে দিয়েছেন তাসকিন আহমেদ, তানজিম হাসান ও তানভির ইসলাম। 

এদিকে শেষ ম্যাচে সফরকারীদের দলে এসেছে এক পরিবর্তন। পেসারের জায়গায় ব্যাটারকে নিল জিম্বাবুয়ে। রিচার্ড এনগারাভার জায়গায় ফিরেছেন শন উইলিয়ামস। 

বাংলাদেশ একাদশ: নাজমুল হোসেন (অধিনায়ক), তানজিদ হাসান, সৌম্য সরকার, তাওহিদ হৃদয়,  সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ, মেহেদী হাসান, জাকের আলী (উইকেটকিপার), মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, রিশাদ হোসেন, মুস্তাফিজুর রহমান।

জিম্বাবুয়ে একাদশ: তাদিওয়ানাশে মারুমানি, ব্রায়ান বেনেট, সিকান্দার রাজা (অধিনায়ক), ক্লাইভ মাদান্দে (উইকেটকিপার), জোনাথন ক্যাম্পবেল, রায়ান বার্ল, লুক জঙ্গুয়ে, ফারাজ আকরাম, ওয়েলিংটন মাসাকাদজা ও ব্লেসিং মুজারাবানি।

আরও পড়ুন

×