ঢাকা বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

ফিরেই নেতৃত্বের চাপ, জেসন বলছেন প্রস্তুত

ফিরেই নেতৃত্বের চাপ, জেসন বলছেন প্রস্তুত

আইসোলেশন শেষে প্রথমদিন অনুশীলনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ছবি: বিসিবি

ক্রীড়া প্রতিবেদক

প্রকাশ: ১৫ জানুয়ারি ২০২১ | ০৪:৩৬

প্রভিডেন্স স্টেডিয়ামে দু'বছরেরও বেশি সময় আগে এই বাংলাদেশের বিপক্ষেই সর্বশেষ ওয়ানডে খেলেছিলেন জেমন মোহাম্মদ। ওয়েস্ট ইন্ডিজের নিয়মিত ক্রিকেটাররা বাংলাদেশে না আসায় আবার দলে ঢুকেছেন তিনি। ফিরেই পেয়েছেন নেতৃত্ব ভার। দুই চাপ সামলানো কঠিন জেসনের জন্য। তিনি সেটা মানছেন। সঙ্গে চ্যালেঞ্জও নিচ্ছেন। এই সিরিজ দিয়ে দলে জায়গা পাকা করতে চান তিনি। জানিয়েছেন, তরুণদের নিয়ে ভালো সিরিজ কাটানোর প্রত্যাশা তার।

বৃহস্পতিবার ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক বলেছেন, 'দলে ডাক পেয়ে এবং নেতৃত্ব পেয়ে আমি খুশি। এর আগে একটি ওয়ানডে এবং দুটি টি-২০ ম্যাচে জাতীয় দলকে নেতৃত্ব দিয়েছি। তবে ঘরোয়া ক্রিকেটে নেতৃত্ব দেওয়ার অনেক অভিজ্ঞতা আমার। যদিও দুটি সম্পূর্ণ আলাদা মঞ্চ। আমি তাই ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নেতৃত্ব দেওয়ার এই সময়টা উপভোগ করতে চাই।'

ঘরের মাঠে হোক কিংবা বাংলাদেশ এখন ওয়েস্ট ইন্ডিজকে বড় পরীক্ষা দিতে হয় তামিম-মুশফিকদের সামনে। তারপরও অনভিজ্ঞ একটা দল নিয়ে করোনাকালে বাংলাদেশে এসেছে ক্যারিবিয়ানরা। সফরকারী তরুণদের জন্য এই সিরিজ তাই পারফরম্যান্স দেখানোর ভালো একটা সুযোগ। আর নেতা হিসেবে জেমন মোহাম্মদের কাজ তার সতীর্থদের ঠান্ডা মাথায় ক্রিকেট খেলানো। এমনটাই জানিয়েছেন তিনি।

জেমন মোহাম্মদ বলেছেন, 'আমরা ভালো মতোই প্রস্তুতি নিয়েছি। সিরিজ নিয়ে পরিকল্পনা করেছি। বাংলাদেশের ভালো ক'জন স্পিনার আছেন। তাদের খেলার প্রস্তুতি রেখেছি। তবে এই স্লো উইকেট জয় করতে আমাদের সেরাটা দিতে হবে। আমাকেও সেরাটা খেলতে হবে। দলের ডাক পাওয়ার ও ক্যারিবিয়ানদের নেতৃত্ব দেওয়ার সুযোগটা নিতে হবে।'

বাংলাদেশের বিপক্ষে, বাংলাদেশের মাটিতে আগেও খেলার অভিজ্ঞতা আছে কিয়েরন পোলার্ডের। ওয়েস্ট ইন্ডিজের নিয়মিত অধিনায়ক তাই নতুন অধিনায়ককে পরামর্শ দিয়েছেন। তার সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ হচ্ছে জেসনের। এছাড়া ক্যারিবিয় কোচ সিমন্সও বাংলাদেশের ক্রিকেট, ক্রিকেটার এবং কন্ডিশন নিয়ে পরিষ্কার ধারণা রাখেন। তিনিও ফাঁদছেন বুদ্ধি। সাবেক ক্যারিবিও কিংবদন্তি লয়েড আবার তরুণ এই উইন্ডিজ দলকে পাঠিয়েছেন বার্তা। সব মিলিয়ে উজ্জ্বীবিত সফরকারীরা।

জেমন মোহাম্মদ জানিয়েছেন, তার এই দলের ক্রিকেটাররা অনভিজ্ঞ হলেও দক্ষ। তারা যদি একসঙ্গে হাত ধরে তবে ভালো করবে উইন্ডিজ। তাদের শুধু মানসিক বাঁধাটা কাটিয়ে উঠতে হবে। সেজন্য উইন্ডিজ দলের সঙ্গে একজন মনোবিদও আছেন। এছাড়া যে যার মতো সমস্যাগুলো কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছেন। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়কের মতে, দল অভিজ্ঞ হোক আর অনভিজ্ঞ একাদশ ঠিক করা সবসময়ই কঠিন।

আরও পড়ুন

×