রাজউক অনুমোদিত নকশা অনুযায়ী পার্ক ও খেলার মাঠ না করলে হাউজিং ও ডেভেলপার কোম্পানির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম।

রোববার দুপুরে রাজধানীর গুলশান-২ নগর ভবনের হলরুমে আয়োজিত দ্বিতীয় পরিষদের নবম করপোরেশন সভায় সভাপতির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

সভায় ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম রেজাসহ শীর্ষ কর্মকর্তা ও কাউন্সিলররা উপস্থিত ছিলেন।

আতিকুল ইসলাম বলেন, সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের আলোকে সিটি বন্ডের মাধ্যমে রাজধানীর ৮১, গুলশান এভিনিউ এবং ৬৪, কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ (বনানী কমিউনিটি সেন্টার) এ বাণিজ্যিক ভবন নির্মাণ করা হবে। 

তিনি বলেন, দেশে প্রথমবারের মতো বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যে রাজধানীর আমিনবাজার এলাকায় সংশ্লিষ্ট প্রকল্পে ৩০ একর ভূমি অধিগ্রহণের জন্য ডিএনসিসি অংশের অর্থ ছাড়ের বিষয়েও সর্বসম্মতিতে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে।

ডিএনসিসি মেয়র বলেন, এছাড়াও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের স্থায়ী কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারী চাকরিরত অবস্থায় মারা গেলে বা গুরুতর আহত হয়ে স্থায়ীভাবে অক্ষম হলে স্থায়ী কর্মকর্তা-কর্মচারী বা তার উত্তরাধিকারীর অনুকূলে ৮ লাখ টাকা আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হবে।

২৪ ডিসেম্বর শুরু হবে ডিএনসিসি মেয়রস কাপ টুর্নামেন্ট

আগামী ২৪ ডিসেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে ডিএনসিসি মেয়র'স কাপ টুর্নামেন্ট-২০২১। ফুটবল, ভলিবল ও ক্রিকেট ইভেন্ট দিয়ে আয়োজিত এ টুর্নামেন্ট রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। টুর্নামেন্টের প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ‘খেলাধুলায় ব্যস্ত থাকি, মাদককে দূরে রাখি।’

রোববার ডিএনসিসি নগরভবনে এই টুর্নামেন্টের ঘোষণা দেন সংস্থাটির মেয়র আতিকুল ইসলাম। 

তিনি বলেন, অত্যন্ত জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনের মাধ্যমে ফুটবল দিয়েই এই টুর্নামেন্টের শুভ উদ্বোধন হবে। ডিএনসিসির ৫৪টি ওয়ার্ডের সাধারণ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলরের তত্ত্বাবধানে দল গঠিত হবে। লটারির মাধ্যমে তিনটি গ্রুপে দলগুলো অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

আতিকুল ইসলাম বলেন, যুবসমাজকে মাদকসহ সকল প্রকার অন্যায় থেকে দূরে রাখতে ডিএনসিসি মেয়র'স কাপ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। খেলাধুলার মূল কথা হলো প্রতিযোগিতামূলক মনোভাব, শৃঙ্খলাবোধ, অধ্যবসায়, দায়িত্ববোধ, কর্তব্যপরায়ণতা ও পেশাদারিত্ব সৃষ্টি করা।

ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম রেজার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ডিএনসিসির শীর্ষকর্মকর্তা-কাউন্সিলরসহ বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাসুদ পাইলট উপস্থিত ছিলেন।

আতিকুল ইসলাম জানান, আগামী ২৪ ডিসেম্বর রাজধানীর বনানীতে বাংলাদেশ আর্মি স্টেডিয়ামে অত্যন্ত জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজনের মাধ্যমে ফুটবল ম্যাচের মাধ্যমে এই টুর্নামেন্টের উদ্বোধন হবে।

এই টুর্নামেন্ট উপলক্ষে লটারি ড্রয়ের মাধ্যমে ফুটবল ও ক্রিকেট এই দুটি ইভেন্টের জন্য ৫৪টি পৃথক দলকে ১৮টি গ্রুপে এবং ভলিবলের জন্য ১৮টি দলকে ৩টি গ্রুপে বিভক্ত করা হয়। ৫৪টি দলের তত্ত্বাবধানে থাকছেন ডিএনসিসির ৫৪টি এলাকার ওয়ার্ড কাউন্সিলর। অন্যদিকে ১৮টি দলের তত্ত্বাবধানে থাকছেন ডিএনসিসির সংরক্ষিত আসনের নারী কাউন্সিলরা।