ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) 'এন' সেটেলমেন্ট ক্যাটাগরির অধীনে সিটি ব্যাংক পারপেচুয়াল বন্ডের লেনদেন আজ সোমবার শুরু করেছে। ডিএসই শেয়ার বাজারের জন্য সিটি ব্যাংক পারপেচুয়াল বন্ডের ট্রেডিং কোড হলো 'CBLPBOND' এবং স্ট্ক্রিপ কোড হলো ২৬০১১। পারপেচুয়াল বন্ড একটি হাইব্রিড সিকিউরিটি, যার কোনো ম্যাচিউরিটির সময় নেই, যার দায় এবং ইক্যুইটি উভয় বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এই ধরনের বন্ড খালাসযোগ্য নয়; বরং এই বন্ড সুদ প্রদানের এক অন্তহীন ধারা বহন করে।
এ উপলক্ষে রাজধানীর নিকুঞ্জে ডিএসই টাওয়ারে একটি উদ্বোধন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডিএসইর এমডি তারেক আমিন ভূঁইয়া, সিটি ব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেখ মোহাম্মদ মারুফ ও অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিএফও মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান এবং সিটি ব্যাংক ক্যাপিটাল রিসোর্সেসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এরশাদ হোসেন।
সিটি ব্যাংক ২০১৯ সালে এ বন্ড ইস্যুর প্রক্রিয়া শুরু করে। দেশে এর আগে পারপেচুয়াল বন্ড কেউই ইস্যু করেনি। ২০২০ সালের ১৯ আগস্ট এবং ৯ ডিসেম্বর যথাক্রমে বাংলাদেশ ব্যাংক এবং বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের অনুমোদন পায় সিটি ব্যাংক। ব্যাংকটি ২০২১ সালের ৭ মার্চ প্রাইভেট প্লেসমেন্টের মাধ্যমে ৪০০ কোটি টাকার সাবস্ট্ক্রিপশন সফলভাবে সম্পন্ন করে। আইডিএলসি ইনভেস্টমেন্টস লিমিটেড এ বন্ডের ট্রাস্টি এবং সিটি ব্যাংক ক্যাপিটাল রিসোর্সেস লিমিটেড বন্ডটির আয়োজক।
বিএসইসি ২০২১ সালের ২৩ মে এবং ২০২২ সালের ২৩ মার্চ সংশোধনীর মাধ্যমে বন্ডটিকে মূল বোর্ড অব এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত করার নির্দেশ দেয়। নির্দেশাবলি অনুসারে, ব্যাংকটি ২০২২ সালের ১৮ জানুয়ারি এবং ২৭ এপ্রিল যথাক্রমে ডিএসই ও সিএসই থেকে বন্ডের তালিকাভুক্তির জন্য অনুমোদন লাভ করে। বন্ডটি আনসিকিউরড, কন্টিনজেন্ট-কনভার্টেবল, সম্পূর্ণ পেইড-আপ, নন-কিউমুলেটিভ এবং ব্যাসেল-৩ অধিভুক্ত। সিটি ব্যাংকের সমন্বিত শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) ২০২১ সালের ৩১ ডিসেম্বর ৫.১৫ টাকায় দাঁড়ায়, যা ২০২০ সালের ৩১ ডিসেম্বর ছিল ৪.০৯ টাকা।