হবিগঞ্জের বাহুবলে বাসচাপায় অটোরিকশা চালক নিহত হওয়ার জের ধরে ট্রাফিক ইন্সপেক্টরের মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ৩৭ জনের নামোল্লেখসহ অজ্ঞাত ৭০০ লোকের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

বুধবার বাহুবল ট্রাফিক জোনের ইন্সপেক্টর মিজানুর রহমান বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। এ মামলায় ৫ জনকে গ্রেপ্তার করে কোর্টের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের আব্দুল্লাহ মিয়ার ছেলে সাইফুল ইসলাম (৩০), একই গ্রামের হাজী আফসর উদ্দিনের ছেলে নোমান মিয়া (২০) ও সিহাব মিয়া (১৯), ইসলামপুর গ্রামের হোসাইন মিয়ার ছেলে জুনাইদ (৩২) এবং শংকরপুর গ্রামের আব্দুল খালেকের ছেলে আব্দুল মালেক (৪৫)।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বাহুবল উপজেলা সদর সংলগ্ন বাগানবাড়ি পয়েন্টে হাইওয়ে পুলিশের ধাওয়া খেয়ে বাসচাপায় অটোরিকশা চালক নিহত ও নারীসহ ৩ আরোহী আহত হয়। এ ঘটনার পর স্থানীয় অটোরিকশা শ্রমিকরা মহাসড়ক অবরোধ করে। এ সময় ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মিজানুর রহমান মোটরসাইকেলযোগে ঘটনাস্থলে পৌঁছলে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা তার মোটরসাইকেলটি আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দেয়।

বাহুবল মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ কামরুজ্জামান জানান, ট্রাফিক ইন্সপেক্টরের মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় মামলা হয়েছে। ৫ আসামিকে গ্রেপ্তার করে কোর্টের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে।

মন্তব্য করুন