পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, হাওরাঞ্চলে আর আগের মতো যত্রতত্রভাবে মাটি ভরাট করে সড়ক নির্মাণ করা হবে না। কারণ বন্যা এলে এই সড়কগুলোই মানুষের দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। সড়কগুলো উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের পানি নামতে দেয় না। প্রতিটি সড়কই পানি নিষ্কাশনে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে। তাই প্রতি বছরই বর্ষায় হাওরাঞ্চলের মানুষের ব্যাপক ক্ষতি হয়। এজন্য আগের মতো আর হাওরাঞ্চলে মাটি ভরাট করে সড়ক নির্মাণ করা হবে না। যোগাযোগের জন্য নির্মাণ করা হবে উড়ালসড়ক।

রোববার বেলা ১১টায় শান্তিগঞ্জ উপজেলার পাথারিয়া ইউনিয়নের ৭০০ বন্যাদুর্গত পরিবারের মাঝে নিজ উদ্যোগে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ কালে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ত্রাণসামগ্রীর মধ্যে ১০ কেজি চাল, ১ লিটার তেল, ১ কেজি চিনি, ১ কেজি ডাল, ১ কেজি লবণ, ২০০ গ্রাম হলুদ গুঁড়া, ২০০ গ্রাম ধনিয়া গুঁড়াসহ মোট ১৪ কেজি ৪০০ গ্রামের ১টি প্যাকেট ছিল।

মন্ত্রী আরও বলেন, আল্লাহর রহমতে এই বিপদ কাটিয়ে উঠব আমরা। তবে আমাদের আরও মানুষের জন্য কাজ করতে হবে। বিশেষ করে বাড়ি ফেরা কার্যক্রমে আমাদের আরও কাজ করতে হবে। যাতে করে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষজন নিজ গৃহে ভালো মতো থাকতে পারেন। আমরা ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের ঘর-বাড়ি মেরামত ও নির্মাণ করে দেব। সরকার দুর্গত মানুষের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। সেইসঙ্গে নগদ অর্থ, খাদ্যসামগ্রী, ঢেউটিনসহ নির্মাণসামগ্রীও বিতরণ করব।

তিনি বলেন, দেশের বিত্তবান মানুষও বন্যাদুর্গত মানুষর পাশে দাঁড়িয়েছেন। আমরা তাদের কাছে কৃতজ্ঞ। যারা এই ক্রান্তিকালে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে অন্ন-বস্ত্র দিয়ে সহযোগিতা করেছেন তারা মহৎ কাজ করেছেন। তবে এই পাশে দাঁড়ানো আরও বেশি প্রয়োজন।

এ সময় উপস্থিতি ছিলেন সুনামগঞ্জ পৌর মেয়র নাদের বখত, পরিকল্পনামন্ত্রীর একান্ত সচিব হারুন অর রশিদ, শান্তিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনোয়ার উজ জামান, দরগাহপুর মাদ্রাসার মুহতামিম শায়খুল হাদিস আল্লামা নুরুল ইসলাম খাঁন, শান্তিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নুর হোসেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান দুলন রানী তালুকদার, সুনামগঞ্জ এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী মাহবুব আলম, শান্তিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ খালেদ চৌধুরী, পাথারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম, সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা, জয়কলস ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাছিত সুজন, উপজেলা যুবলীগের সম্পাদক মনিরুজ্জামান সুজন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ছদরুল ইসলাম, সাবেক সভাপতি রয়েল আহমদ, ছাত্রলীগের সম্পাদক নাইম আহমদ প্রমুখ।