ঊষসী সেনগুপ্তকে হেনস্থার ঘটনায় গ্রেফতার ৭

প্রকাশ: ২০ জুন ২০১৯     আপডেট: ২০ জুন ২০১৯   

অনলাইন ডেস্ক

ঊষসী সেনগুপ্ত

ঊষসী সেনগুপ্ত

প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া ঊষসী সেনগুপ্তকে হেনস্থার ঘটনায় সাতজনকে গ্রেফতার করেছে কলকাতা পুলিশ। প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সাতজনকে জেলে রাখা হয়েছে। আদালতে তোলার পর পরবর্তী পদক্ষেপ জানা যাবে। খবর এনডিটিভির।

গত সোমবার রাতে বাড়ি ফেরার সময় একদল যুবক ধাওয়া করে ঊষসীর উবেরকে। ময়দানের সামনে জোর করে গাড়ি থামিয়ে চালককে নামিয়ে বেধড়ক মারধর করে। ঘটনার ভিডিও তুললে প্রাক্তন এই সুন্দরীকেও হেনস্থা করে তারা। 

গাড়ি ভাঙচুর চালানোর পাশাপাশি ঊষসীর মোবাইল কেড়ে ভিডিওটি নষ্ট করার চেষ্টাও করা হয় বলে অভিযোগ করেন তিনি। 

এ ঘটনায় দক্ষিণ কলকাতার এক সাব ইন্সপেক্টরকেও সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে শো-কজ নোটিশ ধরানো হয়েছে ওই রাতে ঘটনাস্থলে কর্তব্যরত দুই পুলিশ অফিসারকেও। এদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, বার বার অনুরোধ করার পরেও তারা উবের চালকের এফআইআর নিতে রাজি হননি।

মডেল-অভিনেতা ঊষসীর অভিযোগ, সোমবার মধ্যরাতে বন্ধুকে নিয়ে উবেরে করে বাড়ি ফেরার সময় একদল যুবক বাইকে চেপে ধাওয়া করে তাদের। ময়দানের কাছে উবেরটিকে থামায় তারা। তারপরেই চালককে মারধর করতে থাকে। 

পুরো ঘটনার ভিডিও তোলার পর রাত আড়াইটার দিকে ঊষসী এফআইআর দায়ের করতে যান চারু মার্কেট থানায়। তার অভিযোগ, সেখানে আক্রান্ত চালকের বয়ান নিতে চাননি কর্তব্যরত পুলিশ। যদিও প্রশাসনের দাবি, পরে পুলিশ প্রধানের নির্দেশে তারা চালকের এফআইআর নিয়ে তদন্ত শুরু করে।

সাতজনকে গ্রেফতার প্রসঙ্গে কলকাতার সহ নগরপাল মিরাজ খালিদ বলেন, আগামী ২১ জুন পর্যন্ত অভিযুক্তদের জেলে রাখা হবে। পুলিশ সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে শনাক্ত করার চেষ্টা করছে বাকিদেরও। ইতোমধ্যেই আমরা ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করার অনুমতি চেয়ে আদালতে আবেদন জানিয়েছি।

ঘটনার পর থেকেই আতঙ্কে দিন কাটছে ঊষসীর। তিনি বলেন, লেক গার্ডেনের সরকারি আবাসনে সহকর্মীকে নামিয়ে দেওয়ার পরেই ওরা আমায় ঘিরে ধরে। গাড়ি থেকে টেনে নামায়। ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে মোবাইল। 

ঘটনা জানাজানি হতেই সমালোচনার ঝড় বয়ে গেছে রাজনৈতিক মহলে। প্রশাসনের গাফিলতিতে সরব হয়েছেন অনেকেই।