আমি সব উৎসব পালন করি, বললেন নুসরাত

প্রকাশ: ১২ অক্টোবর ২০১৯      

বিনোদন ডেস্ক

নুসরাত জাহান

ব্যবসায়ী নিখিল জৈনকে বিয়ে করার পর থেকেই বিতর্ক যেন পিছু ছাড়ছে না অভিনেত্রী তথা সাংসদ নুসরাত জাহানের। 

গেলো দুর্গাপূজায় অষ্টমীতে অঞ্জলি দেওয়ায় উত্তরপ্রদেশের একজন মুসলিম ধর্মীয় নেতার সমালোচনার মুখে পড়েন তৃণমূল সাংসদ নুসরাত জাহান। এনডিটিভির প্রতিবেদনে এমনটাই বলা হয়েছে। 

 ওই নেতার আক্রমণের পাল্টা জবাবে নুসারত বলেন, তিনি ‘ঈশ্বরের বিশেষ সন্তান’ এবং এ ধরণের বিতর্কে তার কিছু যায় আসে না।

এ ছাড়াও চালতাবাগান দুর্গাপুজোর মণ্ডপে তার স্বামী নিখিল জৈনের সঙ্গে সিঁদুর খেলায় অংশ নিয়ে নুসরাত বলেন, 'আমি ঈশ্বরের বিশেষ সন্তান। আমি সব উৎসব পালন করি। আমি সকলের ঊর্ধ্বে মানবতা ও ভালোবাসাকে শ্রদ্ধা করি। তৃণমূল সাংসদ আরও বলেন, বিতর্কগুলি আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ নয়।'

গত সোমবার ইত্তেয়াস ওলেমায়ে হিন্দের সহ সভাপতি মুফতি আসাদ কাসমি নুসরাত জাহানকে উদ্দেশ্য করে বলেন , নুসরাত তার কাজ দ্বারা ইসলাম ও মুসলিমদের অপমান করছেন। তার নাম এবং ধর্ম পরিবর্তন করা উচিত। ইসলাম তার অনুসারীদের কেবলমাত্র আল্লার কাছে প্রার্থনা করার আদেশ দেয়, তা সত্ত্বেও তিনি হিন্দু দেবদেবীদের কাছে পুজো দিচ্ছেন। তিনি যা করেছেন তা হারাম। তিনি আরও বলেন, তিনি ধর্মের বাইরে বিবাহও করেছেন। তার নাম ও ধর্ম পরিবর্তন করা উচিত।

দুর্গাপুজার সময়ে লাল শাড়ি পরে নুসরাত তার স্বামীর সঙ্গে সুরুচি সংঘের মণ্ডপে ঢাক বাজিয়ে নাচতে দেখা যায়। নুসাত বলেন, 'আমি মনে করি সকল ধর্মের প্রতি আমার সম্প্রীতির চিত্র তুলে ধরার নিজস্ব নিজস্ব পদ্ধতি রয়েছে। বাংলায় আমার জন্ম ও বেড়ে ওঠা, আমি মনে করি সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যকে অনুসরণ করেই আমি সঠিকভাবে কাজ করছি।'

নুসরাতের এমন পরিস্থিতিতে তার পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন বিজেপি সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরী। তবে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই বিষয়ে নীরব থাকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি।