ঢাকা মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

ব্যক্তিগত বা পেশার কারণে নয়েজ-ফ্রি ভিডিও কলিং অভিজ্ঞতা অপরিহার্য। সময়কে বিবেচনায় নিয়ে টুকে রেজুলেশনের এইচডি ভিডিও কলিং সুবিধা এখন উন্মুক্ত

টুকে এইচডি ভিডিও কল

অ্যাপ আপডেট

টুকে এইচডি  ভিডিও কল

জিয়াউল হাসান

প্রকাশ: ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ০৬:২২

প্রিয়জনের সঙ্গে যোগাযোগ চমকপ্রদ ও অর্থবহ করতে প্রথমবার টুকে রেজুলেশনের এইচডি ভিডিও কলিং সুবিধা ঘোষণা করেছে ইমো। বিশ্বের প্রথম প্ল্যাটফর্ম হিসেবে নিবন্ধিতদের এমন সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। ইমোতে এখন থেকে নিবন্ধিতরা সারাবিশ্বে ছড়িয়ে থাকা বন্ধু, পরিবার ও পরিচিতজনের সঙ্গে যোগাযোগ করার সময় ‘টুকে’ মানের ভিডিও কলিং সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।
সামাজিক যোগাযোগে ভিডিও কলের গুরুত্ব অপরিসীম। বন্ধু ও পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপন বা কোনো প্রফেশনাল সেটিংয়ে জরুরি বিষয়ে কথা বলার সময় বাজে মানের ভিডিও (নয়েজ ও লো পিক্সেল ভিডিও) বিরক্তির কারণ হতে পারে।
এর সমাধানে ইমোর দক্ষ প্রকৌশলীরা টুকে রেজুলেশনের এইচডি ভিডিও কল উন্নয়ন করেছে। যার সহায়তায় নিবন্ধিতরা সারাবিশ্বে যোগাযোগ স্থাপনে পাবেন মানোন্নত ভিডিও কলিং অভিজ্ঞতা।
টুকে রেজুলেশনের এইচডি আউটপুট পেতে ইমোর কারিগরি দল এআই ও মেশিন লার্নিংয়ের শক্তির প্রয়োগ করেছে। প্রথমে ইন্টেলিজেন্ট অ্যালগরিদম ডিজাইন করা হয়, যা নেটওয়ার্কের তারতম্য অনুমান করতে এবং সে অনুযায়ী রিয়েল টাইমে সব ভিডিও প্যারামিটার পরিবর্তন করে স্বচ্ছ ও ভালো মানের ভিডিও অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করে। অ্যাপটির প্রকৌশলীরা ডিভাইসকেন্দ্রিক অপ্টিমাইজেশনের সফল প্রয়োগ করেছেন; ব্যাপকভাবে কাজ করেছেন। স্মার্টফোনের সেরা সব ব্র্যান্ড সহযোগিতায় এমন সফটওয়্যার তৈরি করেছেন, যার সাহায্যে হার্ডওয়্যারের সক্ষমতা কার্যকরভাবে ব্যবহার করা যায়। ফলে মানোন্নত ও উচ্চ রেজুলেশনের ভিডিও কলিং অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করা সম্ভব হয়েছে।
ইমো মেসেঞ্জারের বিজনেস ডিরেক্টর মেহরান কবির বলেন, ভিডিও কলে প্রিয়জনের সঙ্গে যোগাযোগ রক্ষা করা এখন জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ। করোনার কারণে সামাজিক, পেশাগত ও শিক্ষাজীবনে ভিডিও কল বহু গুণ বেড়েছে। করোনার পর থেকে বহু খাতের জন্যই অনলাইন যোগাযোগ জরুরি বলে প্রতীয়মান হয়।
ব্যক্তিগত বা প্রফেশনাল কলের ক্ষেত্রে নয়েজ-ফ্রি ও মানোন্নত ভিডিও কলিং অভিজ্ঞতা অপরিহার্য। সময়ের প্রয়োজনকে বিবেচনায় নিয়ে টুকে রেজুলেশনের এইচডি ভিডিও কলিং সুবিধা উন্মুক্ত করেছে ইমো।
নতুন ফিচার চালু করার আগে বহু ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়। ফলে ত্রুটির কোনো সুযোগ নেই। এমন একটা সময় ছিল, যখন ভিডিওর ক্ষেত্রে ১০৮০ পিক্সেল স্ট্যান্ডার্ড হিসেবে বিবেচনা করা হতো। 
এখন গ্রাহকরা সহজেই দ্বিগুণ রেজুলেশনের ভিডিও সেবা পেয়ে থাকেন। ভিডিও কল 
করার সময় ইমো অ্যাপে টুকে এইচডি কোয়ালিটিতে সুইচ করেই ভিডিও কলিং সেবা উপভোগ্য হবে।

আরও পড়ুন

×