ঢাকা শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪

ওয়ালটন সদরদপ্তরে ইউএই রাষ্ট্রদূত

ওয়ালটন সদরদপ্তরে ইউএই রাষ্ট্রদূত

আইসিটি ডেস্ক

প্রকাশ: ২১ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ১৮:০০ | আপডেট: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | ০৩:৪৬

ডিজিটাল ব্র্যান্ড ওয়ালটনের সব উৎপাদন কারখানা সুন্দর ও অত্যাধুনিক বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রদূত আবদুল্লাহ আলি খাসেইফ আল হামুদি। ব্র্যান্ডটির ইলেকট্রনিকস, ইলেকট্রিক্যাল এবং আইটি পণ্য আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন। সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাংলাদেশে তৈরি ওয়ালটন পণ্যের চাহিদা আছে। দুবাইকে কেন্দ্র করে মধ্যপ্রাচ্যের সব দেশে ওয়ালটন পণ্য রপ্তানি সম্ভাবনাময়। গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটন সদরদপ্তর পরিদর্শনে গিয়ে এমন মন্তব্য করেন ইউএই রাষ্ট্রদূত। সদরদপ্তর পরিদর্শনকালে বাংলাদেশে ওয়ালটন যেসব পণ্য উৎপাদন ও বিপণন এবং বিশ্বজুড়ে রপ্তানি করছে, সেসব বিষয় তিনি প্রত্যক্ষ করেন। দুবাইয়ের ফ্রি পোর্ট ব্যবহার করে সংযুক্ত আরব আমিরাতে ওয়ালটন পণ্যের বাজার সম্প্রসারণে ইউএই রাষ্ট্রদূত সর্বাত্মক সহযোগিতার কথা বলেন।

সদরদপ্তর প্রাঙ্গণে রাষ্ট্রদূত আবদুল্লাহ আল হামুদিকে স্বাগত জানান ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এস এম রেজাউল আলম। ওই সময় উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসির উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) ইবনে ফজল শায়েখুজ্জামান, ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর মোহাম্মদ ইউসুফ আলী, সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর ইয়াসির আল ইমরান, ইন্টারন্যাশনাল বিজনেসের ভাইস প্রেসিডেন্ট আবদুর রউফ, ওয়ালটন কম্পিউটার পণ্যের চিফ বিজনেস অফিসার তৌহিদুর রহমান রাদ প্রমুখ।

ওয়ালটন সদরদপ্তরে পৌঁছে ইউএই রাষ্ট্রদূত প্রথমে বাংলাদেশের ইলেকট্রনিকস, ইলেকট্রিক্যাল এবং আইটি পণ্য উৎপাদন, বিপণন ও রপ্তানি খাত সম্পর্কে তথ্যচিত্র (ডকুমেন্টারি) দেখেন। তারপর ওয়ালটনের বহুমাত্রিক পণ্যে সুসজ্জিত ডিসপ্লে সেন্টার পরিদর্শন করেন। পরে রেফ্রিজারেটর, এয়ারকন্ডিশনার, টেলিভিশন, কম্প্রেসর, মোল্ড-ডাই, ল্যাপটপ-কম্পিউটার, পিসিবি, এলিভেটর পণ্যের উৎপাদন প্রক্রিয়া সরেজমিনে প্রত্যক্ষ করেন। ইউএই রাষ্ট্রদূত আন্তর্জাতিকমানের পণ্য উৎপাদন ও সারাবিশ্বে রপ্তানিতে ওয়ালটন তথা বাংলাদেশের অগ্রগতিতে সন্তোষ প্রকাশ করেন।

আরব আমিরাতের সব দেশে ওয়ালটন পণ্য রপ্তানির বিপুল সম্ভাবনা বিদ্যমান। ওয়ালটন কম্পিউটার পণ্যের চিফ বিজনেস অফিসার তৌহিদুর রহমান রাদ জানালেন, পরিদর্শনকালে বাংলাদেশ ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের মধ্যকার দ্বিপক্ষীয় ব্যবসায়িক সম্পর্ক কীভাবে আরও সমৃদ্ধ করা যায়, সেসব বিষয়ে রাষ্ট্রদূত হিজ এক্সিলেন্সি আবদুল্লাহ আলি খাসেইফ আল হামুদির সঙ্গে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়। দুবাইয়ের ফ্রি পোর্টকে হাব বা কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করে কীভাবে আশপাশের সব দেশে ব্যবসা সম্প্রসারণ করা যায়, সে বিষয়ে রাষ্ট্রদূত সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন।

সংশ্লিষ্ট খাতে বাংলাদেশে তৈরি পণ্য রপ্তানিতে তিনি আরব আমিরাতের ইলেকট্রনিকস, ইলেকট্রিক্যাল ও প্রযুক্তিপণ্যের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ওয়ালটনের যোগাযোগ স্থাপন এবং ওয়ালটন পণ্য বিপণনে আগ্রহ প্রকাশ করেন।

আরও পড়ুন

×