ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩

মানসিক স্বাস্থ্য দিবস

মানসিক সুস্থতায় টিকটক প্রচারণা

মানসিক সুস্থতায় টিকটক প্রচারণা

মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতনতা বাড়ানোর জন্য ক্যাম্পেইন চালু করেছে টিকটক।

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ১১ অক্টোবর ২০২৩ | ১৩:৪৪ | আপডেট: ১১ অক্টোবর ২০২৩ | ১৩:৪৬

মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতনতা বাড়ানোর জন্য ক্যাম্পেইন চালু করেছে টিকটক। অক্টোবর মাসে বাংলাদেশসহ বিশ্বজুড়ে মানসিক স্বাস্থ্যের সব সমস্যা কমিয়ে আনার লক্ষ্যে টিকটক মানসিক স্বাস্থ্য দিবসটি উদযাপন করছে। যা প্ল্যাটফর্মের কমিউনিটি প্রতিশ্রুতির অংশ।

বিশ্ব মানসিক স্বাস্থ্য দিবসকে গুরুত্ব দিতে টিকটক প্ল্যাটফর্মে এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞ, ক্রিয়েটর এবং অ্যাডভোকেটদের গল্প তুলে ধরেছে। একাত্মতা প্রকাশের অংশ হিসেবে, রেয়ার ইম্প্যাক্ট ফান্ডে টিকটক আড়াই লাখ ডলার প্রদান করেছে। তরুণ প্রজন্মকে মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে জানাতে ও সেবা প্রচারের উদ্দেশ্যে ইভেন্টের আয়োজন করা হয়। রেয়ার ইম্প্যাক্ট ফান্ড হলো সেলেনা গমেজের উদ্যোগ। যা মানসিক স্বাস্থ্য ও আত্মসচেতনতা নিয়ে কাজ করে।

গ্লোবাল অ্যাপ সমীক্ষার তথ্যানুসারে, বাংলাদেশি ৫৮ শতাংশ টিকটক ব্যবহারকারী টিকটকের মধ্য দিয়ে নিজেদের অস্তিত্ব খুঁজে পেয়েছেন বলে মনে করেন। টিকটকের গ্লোবাল ক্যাম্পেইন (#MentalHealthAwareness: Better Together) চলবে পুরো অক্টোবর মাসজুড়ে। টিকটক প্ল্যাটফর্ম ব্যবহারকারীদের তাদের মানসিক সুস্থতা নিয়ে ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা এবং গল্প শেয়ার করতে উৎসাহিত করছে।

বাংলাদেশে ক্রিয়েটর ও প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে কাজ করেছে টিকটক। মানসিক সুস্থতা বা ওয়েল বিয়িংয়ের বিষয়গুলোর সঙ্গে প্ল্যাটফর্ম ব্যবহারকারীদের সম্পৃক্ত করতে টিকটকের ওয়েলনেস হাব পেজে ভিডিও ও প্লেলিস্ট প্রদান করে। জুবায়ের, নানজিবা এবং সাইফ সারওয়ারের মতো দেশের আরও অনেক ক্রিয়েটর প্রচারণায় অংশ নিয়েছেন।

ব্র্যাক, ইউনিসেফ সাউথ এশিয়া, সেলিব্রিটি, নেতৃস্থানীয় ব্যাক্তিবর্গের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো এতে সহযোগিতা করেন। কনটেন্ট ক্রিয়েটর নানজিবা বলেন, মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতন করতে টিকটকের উদ্যোগটি প্রশংসনীয়। নিজের অভিজ্ঞতা বিনিময়ে প্ল্যাটফর্মটি আমার মত অনেকের জন্য দারুণ সুযোগ।

অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া বলেন, মানসিক স্বাস্থ্য সম্পর্কে আলোচনা করা জরুরি। টিকটক এমন একটি প্ল্যাটফর্ম হয়ে উঠেছে যা সহানুভূতি ও সচেতনতা বাড়াতে সহায়ক ভূমিকা রাখে।

কনটেন্ট ক্রিয়েটর জুবায়ের বলেন, টিকটকের মানসিক স্বাস্থ্য উদ্যোগটি উৎসাহমূলক। আশা করছি উদ্যোগটি চলমান থাকবে।

ব্র্যাক জানিয়েছে, টিকটকের মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতা প্রচারের উদ্যোগকে স্বাগত। এমন প্রচারাভিযান মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতা বাড়াতে জরুরি।

বাংলাদেশি ব্যবহারকারীরা তাদের অনুপ্রেরণামূলক গল্প ও সুস্থতার অভিজ্ঞতা বিনিময়ে উৎসাহিত হচ্ছেন লোকাল হ্যাশট্যাগ #মেন্টালহেলথ এবং #সেলফকেয়ার যুক্ত করে।

আরও পড়ুন