তরুণ ব্যবহারকারীরা পছন্দের ফোনটি কেনার আগে ক্যামেরা, ডিজাইন, দ্রুত এবং নিরাপদ চার্জিং, পারফরমেন্সের ওপর বেশি জোর দিয়ে থাকেন। আর ঠিক এই বিষয়গুলোকে প্রাধান্য দিয়েই রিয়েলমি দেশের তরুণদের জন্য তাদের নতুন ফ্ল্যাগশিপ ৮ প্রো স্মার্টফোনটি বাজারে নিয়ে এসেছে।

১০৮ মেগাপিক্সেলের দুর্দান্ত আল্ট্রা কোয়াড ক্যামেরা রিয়েলমি ৮ প্রো স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ১০৮ মেগাপিক্সেলের ইনিফিনিট ক্ল্যারিটি ক্যামেরা। সমগ্র স্মার্টফোন ইন্ডাস্ট্রির সর্বোচ্চ পিক্সেলের ক্যামেরাযুক্ত স্মার্টফোন রিয়েলমি ৮ প্রো।

স্মার্টফোনটির প্রাইমারি ক্যামেরায় ১০৮ মেগাপিক্সেলের সাথে রয়েছে থার্ড জেনারেশন আইএসওসেল এইচএম২ সেন্সর, ১/১.৫২ ইঞ্চির এক্সট্রা লার্জ সেন্সর এবং ১২০০০x৯০০০ এর সর্বোচ্চ রেজ্যুলেশন। আইএসওসেল প্লাস পিক্সেল আইসোলেশন প্রযুক্তির সাহায্যে এইচএম২ অপটিক্স লস এবং ক্রস কালারের মাত্রা কমিয়ে আনে, যার ফলে কালার ফিডেলিটি আরো সমৃদ্ধ হয় এবং ১৫ শতাংশ আইএসও বৃদ্ধি পায়।

স্মার্ট আইএসও প্রযুক্তির কল্যাণে একদিকে রিয়েলমি ৮ প্রো দিচ্ছে পরিবেশের সাথে সামঞ্জস্য রেখে সবচেয়ে স্বয়ংক্রিয়ভাবে সেরা আইএসও বেছে নেওয়ার সুবিধা, সেই সাথে পর্যাপ্ত আলো না থাকলেও ব্যবহারকারীরা পাচ্ছেন রিয়েলমি ৮ প্রো'র সাহায্যে স্পষ্ট এবং উজ্জ্বল ছবি তোলার সুবিধা। এছাড়াও, এইচএম২ সেন্সর নাইন-ইন-ওয়ান পিক্সেল বিনিং প্রযুক্তি সাপোর্ট করে থাকে, যার মাধ্যমে মৃদু আলোতে তোলা ছবিও বেশ স্পষ্টভাবে ক্যামেরাবন্দি করা যায়।

রিয়েলমি ৮ প্রো এর ১০৮ মেগাপিক্সেল মেইন সেন্সর ছাড়াও কোয়াড ক্যামেরা সেটআপে রয়েছে ৮ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল লেন্স, ২ মেগাপিক্সেল ব্ল্যাক এন্ড হোয়াইট পোর্ট্রেট লেন্স এবং ২ মেগাপিক্সেল ম্যাক্রো লেন্স– যা যে কোনো ব্যবহারকারীর জন্যই আকর্ষণীয়।

এর আলট্রা ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল লেন্সের এফ/২.২৫ অ্যাপারচার, ৮ মেগাপিক্সেল রেজ্যুলুশন এবং ১১৯ ডিগ্রি ফিল্ড অব ভিউয়ের কল্যাণে এখন অল্প দূরত্ব থেকেই ফ্রেমে জায়গা হবে আশেপাশের সব কিছু।

অন্যদিকে ক্ষুদ্রাকৃতির যেকোনো বস্তুর ছবিও স্পষ্টভাবে ফ্রেমবন্দী করার জন্য রিয়েলমি ৮ প্রোতে রয়েছে আল্ট্রা ম্যাক্রো লেন্স। অভিনব কালার ফিল্টার সিস্টেমের সাহায্যের স্মার্টফোনটির পোর্ট্রেট লেন্স অন্যান্য সেটের তুলনায় অনেক বেশি রঙ ফুটিয়ে তুলতে পারে। ফলে মূল লেন্সের জন্য আলো এবং রঙের সংমিশ্রণ আরো অনেক বেশি উন্নত হয়, যা রিয়েলমি ৮ প্রোতে তোলা যেকোনো পোর্ট্রেটকে জীবন্ত করে তোলে।

এমন চমৎকার সব ফিচারের বাইরেও রিয়েলমি ৮ প্রোর ক্যামেরার সাথে ব্যবহারকারীরা পাচ্ছেন নতুন সুপার নাইটস্কেপ, ৩এক্স ইন-সেন্সর জুম, বিশ্বের সর্বপ্রথম স্টারি টাইম-ল্যাপস ভিডিও এবং টিল্ট-শিফট মোড, যার সমন্বয় রিয়েলমি ৮ প্রো-কে বাজারে অতুলনীয় করে তুলেছে।

মাত্র ১৭ মিনিটে ০-৫০% চার্জ
রিয়েলমি ৮ প্রোতে রয়েছে ৫০ ওয়াটের সুপার ডার্ট চার্জার। এ কারণেই মাত্র ১৭ মিনিটে এর ৪৫০০ মেগাঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি ০-৫০% চার্জ হয়ে যাবে। অত্যাধুনিক টেকনোলজির কারণে দ্রুত চার্জ হলেও রিয়েলমি ৮ প্রো চার্জের সময় মাত্রাতিরিক্ত গরম হয় না। পাশাপাশি, রিয়েলমি ৮ প্রো এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যাতে প্রয়োজনের অতিরিক্ত কোনো কারণে চার্জ অপচয় না হয়, তাই এই সেটটি যেকোনো ব্যবহারকারীকে দিবে দিনভর প্রয়োজনীয় সকল কাজ নির্ঝঞ্ঝাটে করতে পারার নিশ্চয়তা। মাত্র ৫% ব্যাটারি থাকলেও রিয়েলমি ৮ প্রো দিবে ৩২ ঘণ্টা পর্যন্ত স্ট্যান্ডবাই সুবিধা। রিয়েলমি ৮ প্রোর সাথে ব্যবহারকারীরা পাচ্ছেন একটি ৬৫ ওয়াটের সুপার ডার্ট চার্জিং অ্যাডাপ্টার, যার সাহায্যে অন্যান্য স্মার্ট ডিভাইস সুপার ফাস্ট এবং সুপার সেইফভাবে চার্জ করা যাবে।

দেশের বাজারে রিয়েলমি ৮ প্রো পাওয়া যাচ্ছে ৮ জিবি র‍্যাম এবং ১২৮ জিবি রমে ইনিফিনিট ব্লু ও ইনফিনিট ব্ল্যাক– এই দুটি খুবই সুন্দর রঙে। সেটটির বর্তমান বাজার মূল্য মাত্র ২৭,৯৯০ টাকা।

এজি ক্রিস্টাল নকশা, ওজন মাত্র ১৭৬ গ্রাম ক্যামেরা, ব্যাটারি ব্যাকআপের পাশাপাশি তরুণদের চাই দারুণ ডিজাইনের খুবই স্টাইলিশ এবং স্লিম একটি স্মার্টফোন। রিয়েলমি ৮ প্রো এজি ক্রিস্টাল প্রসেসিংয়ের মাধ্যমে এমনভাবে নকশা করা হয়েছে যা ফোনটির ব্যাকশেলে ফুটিয়ে তুলেছে ক্রিস্টাল ইনফিনিটি ডিজাইন। দেখতে খুবই সুন্দর এই স্মার্টফোনটি 'স্লিম অ্যান্ড লাইট' গড়নকেই বেছে নিয়েছে। 

মাত্র ১৭৬ গ্রাম ওজন ও ৮.১ মিলিমিটার পুরুত্বের সেটটি বেশ আকর্ষণীয় এবং তাক লাগিয়ে দেওয়ার মতনই বটে। এতে রয়েছে ৬.৪ ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেড স্ক্রিনের ফুল ডিসপ্লে, যা যেকোনো ছবি বা ভিডিওকে প্রাণবন্তভাবে ফুটিয়ে তুলতে সাহায্য করে। এই ডিসপ্লে খুবই স্মুথ কারণ এতে রয়েছে ১৮০ হার্টজ টাচ স্ম্যাপ্লিং রেট। এতকিছুর সাথে থাকছে অ্যান্ড্রয়েড ১১ ভিত্তিক একদম নতুন রিয়েলমি ইউআই ২.০।

ইউআইটি আগের চাইতে আরো বেশি দ্রুত। ব্যবহারকারীদের সুবিধার্থে এই অপারেটিং সিস্টেমটিতে স্বাচ্ছন্দ্যময় ও আরামদায়ক স্মার্টফোন ব্যবহারের দিকেই জোর দেওয়া হয়েছে। ব্যবহারকারীদের সৃজনশীলতা, সামাজিক যোগাযোগ এবং উৎপাদনশীলতা– এই তিনটি বিষয়কে মূখ্য করে রিয়েলমি তাদের ইউআই ২.০ তৈরি করেছে। রিয়েলমি ইউআই ২.০-তে ব্যবহারকারীরা ১০০টিরও বেশি কাস্টমাইজেশনের সুবিধা পাবেন। এতকিছুর পাশাপাশি রিয়েলমি ৮ প্রোতে রয়েছে দারুণ পারফরমেন্সের জন্য স্ন্যাপড্রাগন ৭২০জি গেমিং প্রসেসর এবং ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর।

রিয়েলমি ৮ প্রো রিয়েলমি ব্র্যান্ডশপ থেকে প্রি-অর্ডার করতে পারবেন ৩-৯ এপ্রিল। প্রি-অর্ডারের সাথে পাওয়া যাবে লিমিটেড এডিশন গিফট বক্স, ব্যাগ, ৬ মাসের ফ্রি স্ক্রিন রিপ্লেসমেন্ট ওয়ারেন্টি। প্রি-অর্ডার করার জন্য ক্লিক: https://rebrand.ly/Pre_Order_realme_8Pro এক কথায় আসন্ন ঈদ-উল-ফিতরে রিয়েলমি ৮ প্রো তরুণদের জন্য দুর্দান্ত একটি স্মার্টফোন।

বিষয় : রিয়েলমি ৮ প্রো রিয়েলমি

মন্তব্য করুন