পৃথিবীর বৃহত্তম ডিজিটাল মিডিয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর বৈশ্বিক অংশীদার আলেফ হোল্ডিং। এই প্রতিষ্ঠানের নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পেয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ইমরান খান।

বাংলাদেশে জন্ম ও বড় হওয়া ইমরান খান শিক্ষার্থী হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান। সেখানে ২০০০ সালে ডেনভার বিশ্ববিদ্যালয়ের ড্যানিয়েলস্ কলেজ অফ বিজনেসে পড়াশুনা করেন।তিনি পৃথিবীর বৃহত্তম দুই টেক আইপিও, আলিবাবা এবং স্ন্যাপ-এর নেতৃত্ব দিয়েছেন। তিনি প্রগতিশীল প্রতিষ্ঠানের সাথে কাজ করা নিয়ে সুপরিচিত। 

আলেফ হোল্ডিং বৃহত্তম ডিজিটাল মিডিয়া প্রতিষ্ঠানগুলোকে (যেমন ফেসবুক, টুইটার, লিংকডইন, স্ন্যাপচ্যাট, টুইচ ও টিকটক) তাদের ওপর নির্ভরশীল বিজ্ঞাপনদাতাদের সাথে যুক্ত করে দেয়। এসকল বিজ্ঞাপনদাতাদের মধ্যে বৈশ্বিক ব্র্যান্ড এবং উঠতি উদ্যোক্তাও রয়েছেন। 

আলেফ হোল্ডিংয়ের সভাপতি ইমরান খান বলেন, এই প্রতিষ্ঠানের বৈশ্বিক অবকাঠামোটি আন্তরিক স্থানীয় অভিজ্ঞতার সাহায্যে জোরদার হয়েছে। এর সাথে প্রতিষ্ঠানটি এমনভাবে উদ্ভাবনী প্রযুক্তির সমন্বয় ঘটায়, যা এই ক্ষেত্রে আর কোনো প্রতিষ্ঠান পারে না। তারা যে প্ল্যাটফর্মগুলোর প্রতিনিধিত্ব করছে, তার ব্যাপকতা আর যে বাজারেই তারা প্রবেশ করে, সেখানকার বিজ্ঞাপনদাতাদের ওপর তাদের ইতিবাচক প্রভাব দেখে আমি মুগ্ধ হয়েছি। এটি এমন একটি মডেল, যার অনেক উন্নতি করার সুযোগ আছে।     

আলেফ হোল্ডিংয়ের সিইও গ্যাস্টন টারাটুটা জানান, ইমরান বিপুল পরিমাণ অভিজ্ঞতা নিয়ে আমাদের প্রতিষ্ঠানে আসছেন। আমাদের যাত্রার পরবর্তী ধাপের জন্য তাঁর উদ্যোক্তা-চিন্তা ও বৈশ্বিক প্রযুক্তি বিষয়ক অভিজ্ঞতার সমন্বয় সম্পূর্ণ যথাযথ। ২০০৫ সালে মাত্র ৫,০০০ ইউএস ডলার নিয়ে আমি এই ব্যবসাটি শুরু করেছি, আর আজ আমরা ১ বিলিয়ন ইউএস ডলার রাজস্ব নিয়ে বছরটি শেষ করার দিকে এগোচ্ছি। বিজ্ঞপ্তি।

বিষয় : আলেফ হোল্ডিং ইমরান খান

মন্তব্য করুন