ব্যবহারকারীদের অগমেন্টেড রিয়েলিটি (এআর) লেন্সের সুবিধা দিতে সম্প্রতি স্ন্যাপ ইনকর্পোরেটেডের সঙ্গে জোট বেঁধেছে রাকুতেন ভাইবার।

বাংলাদেশে প্রতিনিয়ত ভাইবার ব্যবহারকারীর সংখ্যা বাড়ছে। এই চাহিদার সঙ্গে তাল মেলাতে দেশের গ্রাহকদের জন্যও নতুন লেন্স ফিচার আনতে যাচ্ছে ভাইবার। ক্যামেরা কিট, ক্রিয়েটিভ কিট এবং বিটমোজি’র মত স্ন্যাপের ডেভেলপার টুলগুলোর সাহায্যে ভাইবারের অ্যাপটি এআর লেন্সকে সমন্বিত করবে, স্ন্যাপচ্যাটে শেয়ার করার সুবিধা দেবে এবং কাস্টমাইজেবল বিটমোজি অ্যাভাটারও নিয়ে আসবে।

বিভিন্ন অ্যানিম্যাল মাস্ক ও ভাইবার ক্যারেক্টার, আন্ডারওয়াটার লেন্স, সিলি ক্যাট ইন্টার‌্যাকশন-সহ ৩০টি নতুন লেন্স নিয়ে আসতে যাচ্ছে ভাইবার। প্রতিষ্ঠানটির পরিকল্পনা রয়েছে প্রতিমাসে ৫০ থেকে ৭০টি অতিরিক্ত লেন্স নিয়ে আসার, যার ফলে এ বছরের শেষে অন্তত ৩শ’টি লেন্স নিয়ে আসবে। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোরও সুযোগ থাকবে ভাইবারের নিজেদের লেন্স তৈরি করার। ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ডলাইফ ফেডারেশন (ডব্লিউডব্লিউএফ), এফসি বার্সেলোনা এবং ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশনের (ডব্লিউএইচও) মতো প্রতিষ্ঠানসমূহ মেসেজিং অ্যাপ্লিকেশনে নিজেদের লেন্স চালু নিয়ে আসবে। কাস্টোমাইজ এ লেন্সগুলো ব্যবহারকারীকে ভাইবার প্ল্যাটফর্মে তাদের পছন্দের ব্র্যান্ডগুলোর সাথে সম্পৃক্ততা বাড়াতে সহায়তা করবে।
উল্লেখ্য, ভাইবার একটি কলিং এবং মেসেজিং অ্যাপ। অ্যাপটি ব্যক্তিপরিচয় বা অবস্থান নির্বিশেষে সকল ব্যবহারকারীর জন্য সৃজনশীল উপায়ে নিজেকে তুলে ধরার সুযোগ সৃষ্টিতে কাজ করে। ভাইবারের প্রতিটি ব্যক্তিগত ও গ্রুপ চ্যাট এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন (ইটুইই) দ্বারা সুরক্ষিত।

এ প্রসঙ্গে স্ন্যাপ ইনকর্পোরেটেড ক্যামেরা প্ল্যাটফর্ম পার্টনারশিপ ডিরেক্টর এলিয়ট সলোমন মন্তব্য করেন, “রাকুতেন ভাইবারের সাথে স্ন্যাপের এই অংশীদারিত্ব উভয় প্রতিষ্ঠানের জন্যই লাভজনক হতে যাচ্ছে। ইতিমধ্যেই ভাইবার যেসব অঞ্চলের গ্রাহকদের মাঝে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে, তাদের কাছে আমরা এখন আমাদের অগমেন্টেড রিয়েলিটি প্রযুক্তির পরিসীমা বিস্তৃত করতে পারছি এবং ভাইবার ব্যবহারকারীদের এআর প্রযুক্তির মাধ্যমে নিজেকে আকর্ষণীয় রূপে প্রকাশের সুযোগ তৈরি করছি।”

অন্যদিকে, ভাইবারের প্রধান নির্বাহী জামেল অ্যাগাউয়া বলেন, “ব্যবহারকারীদের হাতে স্ন্যাপ ক্যামেরা পৌঁছে দিতে পেরে আমরা আনন্দিত। এই অংশীদারিত্বের মাধ্যমে আমরা ব্যবহারকারীদের হাতে এআর-এর দূর্দান্ত ক্ষমতা তুলে দিতে চাই এবং বন্ধুবান্ধব ও স্বজনদের সাথে যোগাযোগের হাসি-ঠাট্টায় এক নতুন মাত্রা যুক্ত করতে চাই।”


বিষয় : ভাইবার স্ন্যাপ ইনকর্পোরেটেড

মন্তব্য করুন