টোকিও অলিম্পিকের প্রথম দিনে ২৮টি দেশ পদক তালিকায় নাম লিখিয়েছে। প্রথম দিনে নিষ্পত্তি হওয়া ১১টি স্বর্ণপদক জিতে নিয়েছে ৯টি দেশ। এর মধ্যে তিনটি স্বর্ণপদক জিতে প্রথম দিনে এগিয়ে আছে চীন।

একটি স্বর্ণের সঙ্গে একটি রুপা জিতে দ্বিতীয় স্থানে আছে ইতালি ও জাপান। পদক জয়ের দিক থেকে এগিয়ে চীনই। চারটি পদক জয়ী চীনের পরই আছে দক্ষিণ কোরিয়া। দুটি ব্রোঞ্জ ছাড়াও একটি স্বর্ণ জিতেছে দক্ষিণ কোরিয়া।

শুটিংয়ে নারী এককের ১০মিটার এয়ার রাইফেলে স্বর্ণ জিতেছেন চীনের ইয়াং কিয়ান। ২৫১.৮ স্কোর গড়ে রাশিয়ার আনাস্তাসিয়া গালাশিনাকে পেছনে ফেলে স্বর্ণ জিতেছেন ইয়াং। সুইজারল্যান্ডের নিনা ক্রিস্টেন পেয়েছেন ব্রোঞ্জ। শেষ শটে স্নায়ুর চাপ ধরে রেখে ৯.৮ স্কোর গড়েন ২১ বছর বয়সী ইয়াং। রাশিয়ার প্রতিযোগী ০.৭ স্কোর পেছনে থেকে পেয়েছেন রুপা।

ভারোত্তোলনে নারীদের ৪৯ কেজি বিভাগে স্বর্ণ জিতেছেন চীনের হউ ঝিহুই। ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ১১৬ কেজি ওজন তুলেছেন তিনি। স্ন্যাচে তুলেছেন ৯৪ কেজি। সবমিলিয়ে ২১০ কেজি তুলে রেকর্ড গড়েন তিনি। এ বিভাগে রৌপ্য পদক জিতেছেন ভারতের মীরাবাঈ চানু। তিনি তুলেছেন ২০২ কেজি। ১৯৪ কেজি ভার তুলে ব্রোঞ্জ পদক পেয়েছেন ইন্দোনেশিয়ার উইন্ডি কানথিকা আইসাহ।

শুটিংয়ে পুরুষদের ১০ মিটার এয়ার পিস্তলে স্বর্ণ জিতলেন ইরানের জাভেদ ফারুঘি। ৪১ বছর বয়সে গড়েছেন নতুন অলিম্পিক রেকর্ড। ২৪৪.৮ পয়েন্ট নিয়ে প্রথম হন এ ইরানি শুটার। ২৩৭.৯ পয়েন্ট পেয়ে দ্বিতীয় হয়েছেন সার্বিয়ার দামির মিকেচ। ব্রোঞ্জ পদক পান চীনের প্যান ওয়েল। ২১৭.৬ পয়েন্ট পেয়েছেন তিনি।

আর্চারির রিকার্ভ মিক্সড ডাবলে স্বর্ণ জিতলো দক্ষিণ কোরিয়ার আন সান ও কিম জি ডিওক জুটি। ফাইনালে তারা হারায় নেদারল্যান্ডসের গ্যাব্রিয়েলা স্ক্লোসের ও স্টিভ উইলার জুটিকে। ৫-৩ পয়েন্টের ব্যবধানে হারিয়ে স্বর্ণ জিতে নিয়ে কোরিয়ান জুটি। এ বিভাগে ব্রোঞ্জ পেয়েছেন মেক্সিকোর আলেহান্দ্রা ভ্যালেন্সিয়া ও লুইস আলভারেজ জুটি।

সাইক্লিংয়ে স্বর্ণপদক জিতেছেন ইকুয়েডরের রিচার্ড কারাপাজ। এ লড়াইয়ে দ্বিতীয় হয়ে রৌপ্য জিতেছেন বেলজিয়ামের ওট ভ্যান আর্ট। স্লোভেনিয়ার তাদেজ পোগাসার জিতেছেন ব্রোঞ্জ।

অলিম্পিকে স্বাগতিক জাপানকে প্রথম স্বর্ণ এনে দিলেন তাকাতো নাওহিসা। জুডোর পুরুষদের ৬০ কেজি বিভাগে চাইনিজ চাইপের ইয়াং ইয়ুং ওয়েলকে হারান এ জাপানি। এ বিভাগে ব্রোঞ্জ পদক জিতেছেন কাজাখস্তানের ইয়েলদোস স্মেতোভ ও ফ্রান্সের লুকা এমখেলদজি।

নারী জুডোতে প্রথম স্বর্ণ জিতেছেন কসভোর দিসত্রিকা ক্রাসনিকি। নারীদের ৪৮ কেজি বিভাগে জাপানের তোনাকি ফুনাকে হারান তিনি। এ বিভাগে তৃতীয় হয়ে ব্রোঞ্জ পদক পেয়ছেন ইউক্রেনের দারিয়া বিলদিদ ও মঙ্গোলিয়ার উরান্তসেটসেগ।

ফেন্সিংয়ের প্রথম স্বর্ণ পদক পেয়েছে চীন। ফাইনালে রোমানিয়ার আনা মারিয়া পোপেস্কুকে হারিয়ে স্বর্ণ জিতেছেন সান ইয়েন।

তায়কোয়ান্দোতে নারীদের ৪৯ কেজি ইভেন্টে স্বর্ণ জিতেছেন থাইল্যান্ডের পানিপাক ওংপাত্তানাকিত। স্পেনের ১৭ বছর বয়সী আদ্রিয়ানা কেরেজোকে হারিয়ে প্রথম হন তিনি। এ বিভাগে ব্রোঞ্জ পেয়েছেন ইজরাইলের আবিশাগ সেমবার্গ ও সার্বিয়ার তিয়ানা বগদানোভিচ।

তায়কোয়ান্দো দিয়েই টোকিও অলিম্পিকে নিজেদের প্রথম স্বর্ণ জিতেছে ইতালি। পুরুষদের ৫৮ কেজি বিভাগে প্রথম হয়েছেন ভিতো দেল্লাকুয়েলা। তিউনিসিয়ার মোহামেদ খালিল জেনদৌবিকে হারিয়েছেন তিনি। এ বিভাগে ব্রোঞ্জ দক্ষিণ কোরিয়ার জাং জুন ও রাশিয়ান অলিম্পিক কমিটির মিখাইল আরতামোনোভ।